BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আইনের ছাত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ, গ্রেপ্তার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী চিন্ময়ানন্দ

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 20, 2019 11:22 am|    Updated: September 20, 2019 11:50 am

BJP leader Chinmayanand arrested by SIT in Shahjahanpur

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইনের ছাত্রীকে হুমকি দিয়ে এক বছর ধরে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগ। নানা টানাপোড়েনের পর অবশেষে বিজেপির প্রাক্তন সাংসদ স্বামী চিন্ময়ানন্দকে গ্রেপ্তার করা হল। শুক্রবার সকালে শাহজাহানপুর থেকে তাকে পাকড়াও করে সিট। 

[আরও পড়ুন: গত সাত মাসে সর্বনিম্ন নিফটি সূচক, নামল সেনসেক্সও]

শাহজাহানপুরে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ওই তরুণী অভিযোগ করেন স্বামী চিন্ময়ানন্দ টানা এক বছর ধরে হুমকি দিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। উত্তরপ্রদেশের বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তোলার পর থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যান আইনের স্নাতকোত্তর ছাত্রী। মেয়ে নিখোঁজ হওয়ার মাঝে পুলিশের কাছে বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন নিগৃহীতার বাবা। মাঝে কেটে যায় বেশ কয়েকদিন। গত সপ্তাহে সাংবাদিক বৈঠকে করে পুলিশের বিরুদ্ধেও সুর চড়ান আইনের ছাত্রী। তাঁর দাবি, প্রথমে অভিযোগ নিতে গড়িমসি করে পুলিশ। এবং অভিযোগ নেওয়ার পরেও বিজেপি নেতা চিন্ময়ানন্দকে গ্রেপ্তার করেনি বলেও দাবি করেন নির্যাতিতা। পাশাপাশি তিনি এ-ও জানান সিটের উপর তাঁর পূর্ণ আস্থা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: বোরখা পরে সমাবর্তনে, টপার ছাত্রীকে ডিগ্রির শংসাপত্র দিল না রাঁচির কলেজ]

এই মামলায় গঠিত স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিম বা সিট গত সোমবার নিগৃহীতাকে শাহজাহানপুরের আদালতে পেশ করে। একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে তাঁর বয়ান নথিভুক্ত করা হয়। সিটের হাতে ৪৩টি ভিডিও ক্লিপিংসও নিগৃহীতা তুলে দেন। এই টানাপোড়েনের মাঝে গত মে মাসে ওই কলেজে শিক্ষিকা হিসেবে যোগ দেন নিগৃহীতার মা। বৃহস্পতিবারই চিন্ময়ানন্দের কলেজ মুমুক্ষু আশ্রমের অভিযোগকারিণীর মায়ের নিয়োগ সম্পর্কে বিস্তারিত রেকর্ড চেয়েছে সিট। এরপরই শুক্রবার শাহজাহানপুর থেকে স্বামী চিন্ময়ানন্দকে গ্রেপ্তার করা হয়। আগামী সোমবারের মধ্যে এলাহাবাদ হাই কোর্টে তদন্ত রিপোর্ট পেশ করতে পারে সিট। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে