BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শেষকৃত্যের স্থানে জুতো পায়ে বিজেপির নেতারা, খোলালেন শহিদ জওয়ানের আত্মীয়রা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 20, 2019 3:38 pm|    Updated: February 21, 2019 8:38 am

BJP Leaders Asked To Remove Shoes

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শহিদ জওয়ানের শেষকৃত্যের জায়গায় জুতো পরে বসেছিলেন তিন বিজেপি নেতা। তাঁদের এই অনুভূতিহীন ব্যবহার দেখে মাথা গরম হয়ে যায় জঙ্গির গুলিতে হওয়া শহিদ জওয়ানের পরিবারের লোকেদের। সঙ্গে সঙ্গে ক্ষমা চাইয়ে ওই নেতাদের জুতো খুলতে বাধ্য করেন তাঁরা। গতকাল ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের মীরাটের বাসসি টিকরি গ্রামে।

গত সোমবার পুলওয়ামায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিদের সঙ্গে এনকাউন্টারের সময় শহিদ হন মীরাটের বাসসি টিকরি গ্রামের ২৭ বছরের যুবক অজয় কুমার। গত বৃহস্পতিবার জইশ জঙ্গিরা সিআরপিএফের কনভয়ে যেখানে হামলা চালিয়ে ছিল। তার থেকে কিছুটা দূরে জইশ জঙ্গি কামরান ও রশিদ গাজিকে খতম করার সময় তাঁর সঙ্গে শহিদ হন আরও চারজন সেনাকর্মী। এরপর গতকাল অজয় কুমারের পার্থিব শরীরের শেষকৃত্য সম্পন্ন হচ্ছিল তাঁর গ্রামে। তাতে যোগ দিতে হাজির হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সত্যপাল সিং, মীরাটের বিজেপি সাংসদ রাজেন্দ্র আগরওয়াল। শেষকৃত্যর জায়গায় গিয়ে জুতো পরে বসেছিলেন। যা দেখতে পেয়ে রেগে যান শহিদ অজয় কুমারের আত্মীয়রা। সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া সেসময়ের একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, শহিদদের এক আত্মীয় বিজেপি নেতাদের এই কাণ্ডকারখানা দেখে চিৎকার করছে ও শহিদদের প্রতি সেখানে উপস্থিত অন্যদের অনুভূতিকে সম্মান জানানোর কথা বলছেন। এরপরই ওই বিজেপি নেতাদের জোড়হাতে ক্ষমা চেয়ে জুতো খুলে পাশে রাখতে যায়। সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হওয়া অন্য একটি ভিডিওতে আবার শহিদ জওয়ানের শেষকৃত্যর সময় রাজেন্দ্র আগরওয়াল ও সত্যপাল সিংকে নিজেদের মধ্যে হাসাহাসি করে কথা বলতে দেখা গিয়েছে।

 

এই দুটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হওয়ার পরেই সমালোচনা শুরু করেন নেটিজেনরা। কেউ কেউ লেখেন, এই বিজেপি নেতারা খুবই আশাবাদী মানসিকতার মানুষ। তাই যেকোনও বিষয়ের মধ্যেই আনন্দ করার উপাদান খুঁজে পান। কেউ আবার লেখেন, আর কয়েকটা মাস তারপর দেশের জনগণই আপনাদের নিয়ে হাসবে। পুলওয়ামার হামলায় শহিদ হওয়া জওয়ানদের শেষকৃত্যর সময় বিজেপির নেতাদের কাজকর্ম নিয়ে বিতর্ক অবশ্য এই প্রথম নয়। দুদিন আগেই উত্তরপ্রদেশের এক বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজকে এক জওয়ানের শেষযাত্রার সময় গাড়ি থেকে হাসিমুখে হাত নাড়তে দেখা যায়। যার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ পেতেই প্রচণ্ড সমালোচনা হয়েছিল।

[জঙ্গি হামলায় শহিদ অজিত আজাদের মেয়ের দায়িত্ব নিলেন প্রিয়াঙ্কা]

মীরাটের বাসসি টিকরি গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাক্তন সেনাকর্মীর ছেলে অজয় কুমার ২০১১ সালে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন। তারপর ২০১৫ সালে বিয়ে করেন। বর্তমানে তাঁর ছেলের বয়স ২ বছর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে