×

৪ চৈত্র  ১৪২৫  বুধবার ২০ মার্চ ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা ভোটের আগে বেসুরো শরদ পাওয়ার! এনসিপি সুপ্রিমো স্বীকার করে নিলেন আগামী লোকসভা নির্বাচনে দেশের বৃহত্তম দল হতে চলেছে বিজেপি। তবে, পাওয়ারের দাবি, বিজেপি একক বৃহত্তম দল হলেও মোদি ফের দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারবেন না। এই তত্ত্বের পিছনে তাঁর যুক্তি হল, একক বৃহত্তম দল হলেও সরকার গড়ার মতো সাংসদ বিজেপির হাতে থাকবে না। কিন্তু তাতে কি, পাওয়ারের এই ‘বৃহত্তম দল’ স্বীকারোক্তি ভোটের আগে অস্বস্তিতে ফেলেছে বিরোধী শিবিরকে।

[কোনও রাজ্যেই আসন সমঝোতা নয়, রাহুলকে জোর ধাক্কা মায়াবতীর]

বিজেপি বিরোধী, বলা ভাল মোদি বিরোধী মহাজোটের অন্যতম মুখ শরদ পাওয়ার। বর্ষীয়ান এই নেতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, চন্দ্রবাবু নায়ডুর মতো বিভিন্ন দলের মধ্যে সমন্বয় সাধন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাঁর চেষ্টাতেই দিল্লিতে জোট নিয়ে একপ্রস্থ আলোচনা হয়েছিল কংগ্রেস এবং আম আদমি পার্টির। যদিও, শেষ পর্যন্ত সেই জোট বার্তা ভেস্তে যায়। তাছাড়া পাওয়ারের নিজের দল, এনসিপিও মহারাষ্ট্রে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে রয়েছে। বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে সরাতে হলে বড় ভূমিকা নিতে হবে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে । এই পরিস্থিতিতে তাঁর হঠাৎ বিজেপি-স্তূতি অস্বস্তিতে ফেলছে বিরোধী শিবিরকে।

[রমজান-নির্বাচন বিতর্কে এবার মুখ খুললেন জাভেদ আখতার]

কিন্তু কি বললেন এনসিপি সুপ্রিমো? শরদ পাওয়ার বললেন, “আমার মনে হয় না নরেন্দ্র মোদি আবার প্রধানমন্ত্রী হবেন। সরকার গঠনের প্রয়োজনীয় সাংসদ সংখ্যা বিজেপির হাতে থাকবে না। যদিও, একক বৃহত্তম দল বিজেপিই হবে। তবে, সরকার গঠনের জন্য শরিকদের সাহায্য নিতে হবে গেরুয়া শিবিরকে। আর যদিওবা বিজেপি অন্যান্য দলের সহযোগিতা পায়, তাও সরকার গড়ার জন্য তাঁরা অন্য কাউকে প্রধানমন্ত্রী করার শর্ত রাখবেন।” পাওয়ারর এই মন্তব্যে জল্পনা শুরু হয়েছে। বিজেপি শিবিরের একাংশ মনে করছেন, এই মন্তব্যের মাধ্যমে আসলে ঘুরিয়ে নিজেদের পরাজয় মেনে নিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। আবার কেউ কেউ বলছেন, মোদি ছাড়া অন্য কেউ প্রধানমন্ত্রী হলে সমর্থনের দরজাও খোলা রাখলেন তিনি। তবে এনসিপির দাবি, পাওয়ারের বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা হচ্ছে। তিনি কোনওভাবেই বিজেপিকে সার্টিফিকেট দেননি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং