BREAKING NEWS

১৯  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ৪ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কেন আটকে বিধায়কের ছেলের স্করপিয়ো? রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মার অন্য গাড়ির চালককে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2018 9:28 am|    Updated: July 1, 2018 9:29 am

BJP MLA's son Raja thrashed a man after he allgedly did not let his vehicle's pass by.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধায়কের ছেলের গাড়ি যাওয়ার জন্য রাস্তা ছেড়ে দেননি, ফল তো ভুগতেই হবে৷ ঠিক তাই হল! রাস্তায় ফেলে অন্য গাড়ির চালককে বেধড়ক মারধর করল বিধায়কের ছেলের সাগরেতরা৷ সমস্তটাই ধরা পড়ল রাস্তার সিসিটিভিতে৷ কিন্তু তাও পুলিশ কিছুই করতে পারল না৷ কারণ, অভিযুক্ত তো বিধায়কের ছেলে৷ এমনই ঘটনা উঠে এল রাজস্থানের বানসরা এলাকা থেকে৷

[ফের স্বস্তি সাধারণ মানুষের, বাড়ল আধার-প্যান সংযুক্তিকরণের সময়সীমা]

ঘটনাটি ঘটে রবিবার অর্থাৎ পয়লা জুলাই রাজস্থানের বানসরার বিদ্যুৎ কলোনিতে৷ দামি স্করপিয়ো গাড়ি নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে বেরিয়েছিলেন এলাকার বিধায়ক ধন সিং রাওয়াতের ছেলে রাজা৷ কেবল তাঁর নামেই রাজকীয় ব্যাপার নেই, কাজেও রয়েছে৷ জানা গিয়েছে, এর আগেও একাধিক ঘটনায় তাঁর নামে পুলিশের কাছে অভিযোগ জমা পড়েছে৷ কিন্তু কোনও ক্ষেত্রেই পুলিশ পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ৷ প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, এই ঘটনার সময় বিধায়ক পুত্রের গাড়ির আগে দাঁড়িয়েছিল একটি মারুতি সুইফট গাড়ি৷ ফলে যেতে পারেনি এলাকার ‘রাজা’র গাড়ি৷ আটকে যায় সেটি৷ আর তাতেই তেলে বেগুনে জ্বলে ওঠেন অভিযুক্ত ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা৷

[উর্দুতে রামায়ণ লিখে সম্প্রীতির নজির মুসলিম মহিলার]

নিগৃহীত চালক নীরব উপাধ্যায়ের অভিযোগ, হঠাৎই তাঁর উপরে চড়াও হন রাজা ও তাঁর দলবল৷ প্রথমে গাড়ি থেকে বের করা হয় তাঁকে৷ তারপরে চলে মারধর৷ কার্যত মাটিতে ফেলে চলে লাথি, ঘুষি৷ প্রায় পাঁচ-সাতজন মিলে পেটায় ওই চালককে৷ আধমরা অবস্থায় তাঁকে সেখানে ফেলেই চম্পট দেয় অভিযুক্তরা৷ সম্পূর্ণ ঘটনাটি ধরা পড়ে রাস্তার সিসিটিভি ক্যামেরায়৷ কিন্তু পুলিশ বরাবরের মতো এবারও নিষ্ক্রিয়৷ স্থানীয় থানার সাব-ইনস্পেকটর চন্দন সিংয়ের বক্তব্য, প্রথমত কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি অভিযুক্ত রাজা ও তাঁর দলের বিরুদ্ধে৷ দ্বিতীয়ত, বিধায়কের ছেলে, ফলে তাঁর বিরুদ্ধে কিছুই করতে পারবে না পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে