৩১ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ১৭ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিনদিন শিশুদের মধ্যে বাড়ছে অপুষ্টি৷ অসুস্থ হয়ে পড়ছে তারা৷ ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে এবং শিশুদের দুর্দশা দূর করতে মিড-ডে মিলে ডিম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ছত্তিশগড়ের কংগ্রেস সরকার৷ এবার যার বিরোধিতায় সরব হয়েছে রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি৷ একই বিষয়ে আপত্তি করেছে রাজ্যের বেশকিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও৷ তাঁদের মতে, স্কুলের মতো শিক্ষাক্ষেত্রে আমিষ খাদ্যের প্রচলন করা অনুচিত৷ সেই কারণে ডিমের বদলে অন্য কোনও নিরামিষ পুষ্টিকর খাদ্য দেওয়া যেতে পারে শিশুদের৷

[ আরও পড়ুন: ভোটব্যাংক বাঁচাতে টাডা তুলে দেওয়া হয়, কংগ্রেসকে তোপ অমিত শাহর]

জানা গিয়েছে, কেবল বিজেপি ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলি নয়, ছত্তিশগড় সরকার যে মিড-ডে মিলে ডিম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এর বিরোধিতা করেছে কবীরপন্থের সমর্থকরাও। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে সরকার শিক্ষাস্থানে আমিষ খাদ্যের প্রসারে মদত দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ধামাখেদের কবীর আশ্রমের প্রধান দয়া শংকর। হুঁশিয়ারির সুরে তিনি বলেন, ‘‘স্কুল হল শিক্ষার মন্দির। সেখানে আমিষ খাদ্য প্রচলন কোনও ভাবে মেনে নেওয়া যায় না। রাজ্য সরকার শিশুদের মিড-ডে মিলে ডিম দিলে, এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে প্রচার করবে আমাদের সংগঠন৷ গোটা রাজ্যে প্রতিবাদও করা হবে৷’’

[ আরও পড়ুন: ফের চাঁদে পাড়ির চেষ্টা এমাসের শেষে, অভিযান থমকে গিয়েও শুরু স্বপ্নের কাউন্টডাউন ]

সমীক্ষা বলছে, বর্তমানে ছত্তিশগড়ের ৪০ শতাংশ শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে। এই সমস্যার মোকাবিলায় ওই রাজ্যের কংগ্রেস সরকার মিড-ডে মিলে শিশুদের ডিম দেওয়ার কথা ভাবছে। এই সমস্যার সমাধান সূত্র হিসাবে, রাজ্য সরকারের তরফে একটি মন্ত্রিগোষ্ঠীও গঠন করা হয়েছিল। তবে এখনও কোনও ইতিবাচক সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি ওই মন্ত্রিগোষ্ঠী৷ ফলে এখনও সেই সিদ্ধান্ত প্রয়োগ করতে পারেনি সরকার৷ কিন্তু আগে থেকেই সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা শুরু করেছে বিরোধীরা৷ নিরামিষ খাবারের মাধ্যমেও শিশুদের অপুষ্টি দূর করা সম্ভব বলে দাবি করেছে তাঁরা। ওই পথেই সরকারকে সমস্যা সমাধানের পথ খোঁজার বার্তা দিয়েছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং