BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

এনআরসি ইস্যুতে সাধারণ জ্ঞান বাড়ান, মমতাকে তোপ অমিত শাহের

Published by: Tanujit Das |    Posted: July 31, 2018 6:26 pm|    Updated: July 31, 2018 6:26 pm

BJP President amit Shah critisised Congress and TMC over NRC issue

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে এবার বিরোধীদের পালটা তোপ দাগলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷ কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেসকে এক আসনে বসিয়ে সমালোচনার সুরে জানালেন, দেশের ভোট ব্যাংকের রাজনীতি করা হচ্ছে৷ দেশের নিরাপত্তাকে জলাঞ্জলী দিতে চাইছেন বিরোধীরা৷ পাশাপাশি, এনআরসি ইস্যুতে তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাধারণ জ্ঞান নিয়েও কটাক্ষ করেন তিনি৷ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ক্ষমতায় এলে বাংলাতেও হবে এনআরসি৷ 

[১৫ আগস্ট লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের বিষয় ঠিক করবেন আপনি, কীভাবে জানেন?]

সোমবার এনআরসি রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার পরেই বিরোধীদের মধ্যে সবার আগে প্রতিক্রিয়া দেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি৷ ক্ষোভ উগড়ে অভিযোগ করেন, দেশের মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে খেলা করছে কেন্দ্র৷ ভোট ব্যাংকের রাজনীতি করছে কেন্দ্রের শাসনে থাকা বিজেপি সরকার৷ বেছে বেছে তালিকা থেকে বাঙালি ও বিহারিদের বাদ দেওয়া হয়েছে৷ মঙ্গলবার নিজের বক্তব্যে অনেকটা অংশজুড়ে তৃণমূল সুপ্রিমোর সমস্ত সমালোচনার জবাব দেন অমিত শাহ৷ পালটা তোপে অভিযোগ করেন, আসলে এই ইস্যুতে হাতিয়ার করে ভোট ব্যাংকের রাজনীতি করছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ কারণ তাদের কাছে দেশের স্বার্থের চেয়েও রাজনীতি আগে হয়ে উঠেছে৷ মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, নিজের সাধারণ জ্ঞান বাড়ানো উচিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷

গতকাল ঠিক যা বলেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ সেই একই কথা বলেন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও৷ জানান, ক্ষমতায় এলে বাংলাতেও এনআরসি করা হবে৷ এরপরেই পালটা তোপে বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বলেন, যারাই বিজেপি করতে রাজি নন, তাঁদেরই দেশ থেকে বের করে দিতে চাইছে বিজেপি৷ এটা ভারতের রাজনীতি নয়৷ ভারতের রাজনীতি সহনশীলতা ও গণতন্ত্রের উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে৷ যা বিজেপি মানে না৷

[নাগরিকপঞ্জির খসড়ার ভিত্তিতে কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নয়, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

মঙ্গলবার রাজ্যসভায় অমিত শাহের বক্তৃতা পেশের সময়ই তুমুল হই-হট্টগোল শুরু হয়৷ শেষ পর্যন্ত নিজের বক্তব্য শেষ করতে পারেননি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷ সেই প্রসঙ্গ টেনে অভিযোগ করেন, বিরোধীরা ঝামেলা করে তাঁদের কণ্ঠরোধের চেষ্টা করছে৷ মানুষের কাছে ভুলভাবে এনআরসি ইস্যুকে তুলে ধরা হচ্ছে৷ জাতীয় নাগরিকপঞ্জি সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে তৈরি হয়েছে৷ সেখান থেকে কোনও ভারতীয় নাগরিককে বাদ দেওয়া হয়নি৷ কেবল মাত্র যারা ভারতের নাগরিক নন, অনুপ্রবেশকারী তাদেরই এই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি৷ এরপরেই তিনি এনআরসি ইস্যুতে কংগ্রেসকে তোপ দাগেন৷ দাবি করেন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি ইস্যুতে কংগ্রেস তাদের অবস্থান স্পষ্ট করুক৷ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে মনে করিয়ে দেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ও তাঁর দলেরই শীর্ষনেতা তথা প্রাক্তন মন্ত্রী পি চিদম্বরমের অতীতের মন্তব্যকে৷ শাহের অভিযোগ, অসমে যারা অনুপ্রবেশ করে দীর্ঘদিন ধরে সেখানে বসবাস করছে, তারা রাজ্যের মানুষের স্বার্থকে বিঘ্নিত করছে৷ এনআরসি ইস্যুতে বৈঠকের জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ মঙ্গলবারই সন্ধেয় হতে পারে সেই বৈঠক৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে