১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বদলায়নি বিজেপি, বিধানসভা নির্বাচনগুলিতে মহিলাদের টিকিট দেওয়ার ক্ষেত্রে কৃপণই গেরুয়া শিবির

Published by: Biswadip Dey |    Posted: January 21, 2022 12:44 pm|    Updated: January 21, 2022 12:45 pm

BJP seems to be miser in giving tickets to women in assembly elections | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি।

বিশেষ সংবাদদাতা, নয়াদিল্লি: মহিলাদের প্রার্থী করার ক্ষেত্রে বিজেপি (BJP) যে সর্বদাই কৃপণহস্ত ফের তার নজির মিলল। গতবছর বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির মহিলা প্রার্থীর (Female candidate) সংখ্যা কম ছিল। সেই একই ধারা এবারও বজায় রাখল তারা। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে দলের সদর দপ্তরে দু’-দফা সাংবাদিক বৈঠক করে দুই নির্বাচনমুখী রাজ্য গোয়া (Goa) ও উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করেছে বিজেপি। লক্ষণীয়, দুই তালিকাতেই মহিলাদের উপস্থিতির সংখ্যা অত্যন্ত কম।

গোয়া বিধানসভার ৪০টি আসনের মধ্যে এদিন ৩৪ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে বিজেপি। তার মধ্যে মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা মাত্র দুই। আবার উত্তরাখণ্ড বিধানসভার ৭০টি আসনের মধ্যে এদিন বিজেপি ৫৯ জনের প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করেছে। সেখানে মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা মাত্র ছয়। শুধু এই দুই রাজ্যই নয়, দিনকয়েক আগে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দু’দফার ভোটের জন্য প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করেছিল বিজেপি। সেখানেও মহিলা প্রার্থী চোখে পড়ার মতোই কম ছিল।

[আরও পড়ুন: ‘কমরেড দেখা হবে ময়দানে’, দলীয় মুখপত্রে ফের কংগ্রেসের ‘দ্বিচারিতা’ নিয়ে তোপ তৃণমূলের

প্রথম দু’দফা সহ এখন পর্যন্ত উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের জন্য বিজেপি ধাপে ধাপে যে ১১০ জন প্রার্থীর নাম প্রকাশ করেছে, সেখানেও মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা মাত্র ১১।

উল্লেখযোগ্য বিষয়, বিজেপির তরফ থেকে প্রার্থীদের নামের তালিকায় মহিলা প্রার্থীদের নাম নজরে পড়ার জন্য মোটা দাগের কালি ব্যবহার করা হয়। মহিলাদের বিজেপি কত কম সংখ্যক প্রার্থী করছে সেটা বুঝিয়ে দিতেই কি এই ব্যবস্থা, এমনটাই কটাক্ষ রাজনৈতিক মহলের। অথচ দেশের প্রায় প্রতিটি রাজ্যেই মহিলা ও পুরুষ ভোটারের অনুপাত প্রায় সমান সমান।

[আরও পড়ুন: ‘মমতাদি আমারও নেত্রী’, কল্যাণ বিতর্কে জল ঢেলে সপাট জবাব অভিষেকের]

এদিকে প্রার্থী নিয়ে বিজেপির অন্দরে কোন্দল চলছেই। যতদিন পর্যন্ত সমস্ত প্রার্থীর নামের তালিকা প্রকাশ না হচ্ছে তা অত্যন্ত স্বাভাবিক বলেই মনে করেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু তারই মধ্যে কিছু বিষয় নিয়ে প্রশ্নেরও সম্মুখীন হতে হচ্ছে তাদের। গোয়ায় প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পার্রিকারের ছেলে উৎপলকে বিজেপি কেন টিকিট দেয়নি সে নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এরপরেই রাজ্যের নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিস বলেছেন, “উনি (পার্রিকার) এবং ওঁর পরিবার আমাদেরও নিজের পরিবার। আমরা উৎপলকে আরও দু’টি বিকল্প দিয়েছি। প্রথম প্রস্তাব উনি খারিজ করেছেন। তবে দ্বিতীয় প্রস্তাবটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমাদের মনে হয়েছে ওঁর রাজি হয়ে যাওয়া উচিত।” যদিও যে পাঞ্জিম আসনটি থেকে মনোহর পুত্র লড়তে চেয়েছিলেন সেটি বর্তমান বিধায়ককেই আবার দিয়েছে বিজেপি।

পাশাপাশি গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন স্যানকুইলিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে। উপমুখ্যমন্ত্রী মনোহর আজগাঁওকর লড়বেন মারগাঁও বিধানসভা কেন্দ্র থেকে। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামিকে সে রাজ্যের খাটিমা থেকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। অন্যদিকে, কংগ্রেসও এদিন গোয়ার বিধানসভার পাঁচটি আসনের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে