Advertisement
Advertisement

লাদেনের সঙ্গে বিরোধীদের তুলনা টেনে বিতর্কে মন্ত্রী গিরিরাজ

দেশীয় রাজনীতিতে বজায় রয়েছে কুবাক্যের রঙ্গ৷

bjp's giriraj singh calls opposition supporters of osama bin laden
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:June 4, 2018 8:52 pm
  • Updated:June 4, 2018 8:52 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কুনাট্য তো রয়েইছে কুবাক্যও ভারতীয় রাজনীতির সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িয়ে গিয়েছে অনেকদিন হল৷ ফলে আলটপকা মন্তব্য করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসা এখন প্রায় স্বভাবে পরিণত করে ফেলেছেন রাজনৈতিক নেতারা৷ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্রের পরে সেই তালিকায় নাম লেখালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং৷ টুইট করে বিরোধীদের গড়া মহাজোটের সঙ্গে তিনি তুলনা টানেন আল কায়েদার প্রাক্তন প্রধান ওসামা বিন লাদেনের৷

[ক্ষোভ মেটাতে নয়া অস্ত্র! বিহারে এনডিএ-র মুখ হিসেবে তুলে ধরা হল নীতীশকেই]

Advertisement

রবিবার সকালেই টুইটটি করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং৷ সেখানে সরাসরি না বললেও ওসামা বিন লাদেন ও মাওবাদীদের সঙ্গে তুলনা করা হয় এনডিএ জোটের বিরোধীদের৷ বলা হয়, যে গতিতে এনডিএ জোট উন্নয়নের জাহাজ চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, তার উপর ভর করেই ২০১৯-এর নির্বাচনে জয় আসবে৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই টুইটের পরেই তেতে ওঠে রাজনীতির ময়দান৷ মুখ খোলেন দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্ষিয়ান কংগ্রেস নেত্রী শীলা দীক্ষিত৷ তিনি জানান, রাজনৈতিক মতাদর্শগত পার্থক্য থাকলেও আসলে কেউ কারও চিরশত্রু নয়৷ রাজনীতির ময়দানে একটু হলেও মানবিকতা থাকা প্রয়োজন৷ ব্যক্তিগত আক্রমণ অনভিপ্রেত৷ পাশাপাশি বিজেপিকে খোঁচা দিতেও ছাড়েননি তিনি৷ বলেন, গেরুয়া শিবিরের পায়ের তলা থেকে মাটি সরে যাচ্ছে বলেই তারা এমন উত্তেজিত হয়ে পড়েছে৷ শীলা দীক্ষিতের মন্তব্যকে পুরোপুরি সমর্থন করেন প্রাক্তন বিএসপি সাংসদ মুনকোয়াদ আলি৷

Advertisement

[পুরাতাত্ত্বিক গবেষণায় নয়া সাফল্য, মাটি খুঁড়ে উদ্ধার প্রাচীন ব্রোঞ্জের রথ]

একই কায়দায় টুইট বার্তায় শনিবার বিরোধীদের নিশানা করেন বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্র৷ ২৬/১১ মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড তথা জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবার প্রধান হাফিজ সইদের একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি৷ সেখানে সইদকে দেখা যাচ্ছিল, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সম্পর্কে বিষোদ্গার করতে৷ এই টুইটের মাধ্যমে সম্বিত পাত্র ইঙ্গিত দেন, হাফিজ সইদের সঙ্গে একই আসনে বসানো উচিত মহাজোটকে৷ এরপরেই তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠে কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টি৷ বিজেপি মুখপাত্রের টুইটকে ‘অসাংবিধানিক’ বলে কড়া সমালোচনা করা হয় বিরোধীদের পক্ষ থেকে৷ তবে বিরোধীদের সমালোচনাকে উড়িয়ে দেন সম্বিত পাত্র৷ এমন কোনও তুলনা করতে চাননি বলে স্পষ্ট ভাষায় জানান তিনি৷

প্রসঙ্গত, ২০১৯-এ মোদি-শাহের বিজয় রথ থামানোর জন্য মহাজোট তৈরি করেছে বিরোধী দলগুলি৷ যার প্রথম বহিঃপ্রকাশ ঘটেছিল উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর ও ফুলপুর লোকসভা উপ-নির্বাচনে৷ সেখানে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে হাতেহাত রেখে লড়াই করেছিল কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টি৷ সেখানে ভোট প্রচারে গিয়ে কুমন্তব্য করেছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ মহাজোটকে সাপ ও নেউলের বন্ধুত্বের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন তিনি৷

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ