৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ধর্মস্থানে সন্ত্রাস ছড়ানোর চেষ্টা! রবিবার তামিলনাড়ুর ঘটনায় ফের তেমন আতঙ্কই ছড়াল। ছুটির দিন সন্ধেয় গঙ্গাই আম্মান মন্দিরের কাছে বিস্ফোরণে ছড়ায় তীব্র চাঞ্চল্য। ঘটনায় অন্তত দু’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। আহত কমপক্ষে চারজন।

[আরও পড়ুন: নগ্ন ছবির বদলে পাঁচতারা হোটেলে চাকরির টোপ, কুপ্রস্তাব দিয়ে শ্রীঘরে ইঞ্জিনিয়ার]

তামিলনাড়ুর কাঞ্চিপুরম জেলার মনমতী গ্রামে অবস্থিত এই গঙ্গাই আম্মান মন্দির। মন্দির চত্বরের পাশেই একটি পুকুর রয়েছে। তার সামনেই গতকাল সন্ধ্যায় বিকট বিস্ফোরণ ঘটে। মন্দির চত্বরে কয়েকজন একটি বাক্স পড়ে থাকতে দেখেন। সেটি কে বা কারা সেখানে ফেলে রেখে গিয়েছে, জানা যায়নি। কৌতূহলের বশে বাক্সটি খুলতেই ঘটে বিস্ফোরণ। আচমকা বিস্ফোরণে মন্দিরে উপস্থিত ভক্তদের মধ্যে তীব্র আতঙ্ক ছড়ায়। ওই স্থান থেকে পালানোর চেষ্টা করেন অনেকেই। ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন জয়রাম, দিলীপন, যুবরাজ এবং থিরুমাল নামের চার যুবক। তাঁদের প্রত্যেককেই চেঙ্গালপাট্টু হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে মন্দিরের কিছু অংশও। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিস্ফোরকের নমুনা সংগ্রহ করেছে। তবে এটি আইইডি বিস্ফোরণ ছিল কি না, তা এখনও নিশ্চিত করে বলা যায়নি। যদিও প্রাথমিক অনুমান, সেনারা যে বিস্ফোরক ব্যবহার করে থাকেন, তেমন বিস্ফোরকই এক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়েছে। ফরেনসিক রিপোর্টে গোটা বিষয়টি স্পষ্ট হবে।

কাঞ্চিপুরম থানার এসপি জানান, সম্প্রতি মন্দিরটি পরিষ্কার করা হয়েছিল। সেসময় অনেক জিনিসই ফেলে দেওয়া হয়েছিল। মন্দির চত্বরে অজানা বাক্স দেখে তা খুলতে গিয়েই এমন ঘটনা ঘটে। কে বা কারা এই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে তার কিনারা করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। উল্লেখ্য, এর আগেও গীর্জা-মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে জঙ্গিরা। তাই কাঞ্চিপুরমের ধর্মস্থানের ঘটনাও চিন্তা বাড়িয়েছে। 

blast

[আরও পড়ুন: অস্বাস্থ্যকর শতাব্দী এক্সপ্রেসের রান্নাঘর, পচা কাঁচামাল বাজেয়াপ্ত খাদ্য দপ্তরের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং