১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বলির পাঁঠা’ করা হয়েছে তবলিঘি জামাত সদস্যদের! মামলা খারিজ করল বম্বে হাই কোর্ট

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 22, 2020 4:27 pm|    Updated: August 22, 2020 4:27 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের ধর্মসভায় যোগ দেওয়া বিদেশি তবলিঘি জামাত সদস্যদের বিরুদ্ধে হওয়া মামলা খারিজ করে দিল বম্বে হাই কোর্ট (Bombay High Court)। শুক্রবার বম্বে হাই কোর্টের দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ মোট ২৯ জন জামাত সদস্যের বিরুদ্ধে হওয়া মামলা খারিজ করে দেয়। তাঁদের বিরুদ্ধে মহামারী আইন, বিপর্যয় মোকাবিলা আইন, এবং ভিসার শর্ত লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছিল মহারাষ্ট্র পুলিশ। কিন্তু বম্বে হাই কোর্টের ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চের দুই বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, পুলিশ রাজনৈতিক চাপে পড়ে ওই জামাত সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।

বিচারপতি টিভি তালাওয়াড়ে এবং বিচারপতি এম জি সেউলিকরের ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, “মনে হচ্ছে, রাজ্য সরকার রাজনৈতিক চাপে পড়ে পদক্ষেপ করেছে। আর পুলিশও সরকারি নির্দেশের বিরোধিতা করার সাহস পায়নি। যখনই কোনও বিপর্যয় হয়, বা কোনও মহামারী আসে, সরকার একটা বলির পাঁঠা খোঁজে। আর এক্ষেত্রে মনে হচ্ছে, এই বিদেশিদেরই বলির পাঁঠা করার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।” ওই জামাত সদস্যদের দাবি ছিল, ভারত সরকারের দেওয়া বৈধ ভিসাতেই তাঁরা এদেশের সংস্কৃতি এবং আতিথেয়তা উপভোগ করতে এসেছিলেন। আর বিমানবন্দরে তাঁদের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পরই বাইরে বেরনোর অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এমনকী লকডাউনের (Lock Down) সময় তাঁরা কখন কোথায় ছিলেন, সেই সব তথ্য জেলাশাসকদের দিয়েছেন। আবেদনকারীদের এই যুক্তি মেনে নিয়ে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ করে দেয় বম্বে হাই কোর্টের এই ডিভিশন বেঞ্চ।

[আরও পড়ুন: দিল্লির হিংসা নিয়ে লেখা বইয়ের উদ্বোধনে আমন্ত্রিত কপিল মিশ্র, কটাক্ষের শিকার প্রকাশক]

বস্তুত মার্চ মাসে দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাতের এক ধর্মসভায় অংশগ্রহণকারী বহু তবলিঘি সদস্য করোনায় আক্রান্ত হন। তারপরই ওই সংগঠনটি সরকারের রোষের মুখে পড়েছে। নির্দেশ অমান্য করে ধর্মীয় কার্যকলাপ এবং জমায়েত করার অভিযোগ ইতিমধ্যেই তবলিঘি জামাতের (Tablighi Jamaat) প্রায় ৩৫০০ বিদেশি সদস্যকে ব্ল্যাকলিস্ট বা কালো তালিকাভুক্ত করেছে কেন্দ্র। বিশ্বের প্রায় ৩৫টি দেশের বাসিন্দা এই তালিকায় আছেন। এর আগে তবলিঘি জামাতের বিদেশি সদস্যদের ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টেও প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে সরকারকে। এবার মহারাষ্ট্র সরকারকে বম্বে হাই করতে একপ্রকার তিরস্কৃত হতে হল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement