BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হাই কোর্টে খারিজ অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন, আপাতত জেলেই থাকতে হবে অর্ণব গোস্বামীকে

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 9, 2020 4:34 pm|    Updated: November 9, 2020 10:06 pm

Bengali News: Bombay HC refuses interim bail to Arnab Goswami in 2018 abetment to suicide case | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বস্তি পেলেন না রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী (Arnab Goswami)। সোমবার তাঁর অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল বম্বে হাই কোর্ট (Bombay High Court)। ২০১৮ সালে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় অর্ণবের করা অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন শনিবার সংরক্ষিত রেখেছিল হাই কোর্ট। এদিন আদালত অর্ণবকে নির্দেশ দেয় কোনও নিম্ন আদালতে জামিনের আবেদন করার জন্য।

এদিকে আজ মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের সঙ্গে দেখা করেন‌ রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারী। অর্ণব গোস্বামীর নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, অর্ণবের পরিবারকে যেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। গতকাল নবি মুম্বইয়ের তালোজা জেলে পাঠানো হয়েছে অর্ণবকে। আগে তাঁকে আলিবাগে এক মিউনিসিপ্যাল স্কুলের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা হয়েছিল। কিন্তু বিচার বিভাগীয় হেফাজতে থাকাকালীন বিনা অনুমতিতে মোবাইল ফোন ব্যবহার করার অভিযোগে শেষ পর্যন্ত রবিবার তাঁকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: ভোটের ফল বেরলেই বিধায়ক কেনাবেচার আশঙ্কা, দুই শীর্ষ নেতাকে বিহারে পাঠাল কংগ্রেস]

গতকাল অর্ণবকে ভ্যানে তোলার সময় তিনি সকলের উদ্দেশে চেঁচিয়ে উঠে বলেন, ‘‘আমার জীবন বিপন্ন। দয়া করে আদালতকে বলুন আমাকে সাহায্য করতে।’’ কাতর স্বরে তিনি আরও বলেন, তাঁর আইনজীবীর সঙ্গেও তাঁকে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। উলটে কথা বলতে চাইলে ওই জেলের জেলার তাঁকে নিগ্রহ করেন।

গত বুধবার গ্রেপ্তার হয়েছিলেন অর্ণব। তাঁর বিরুদ্ধে ৫ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে শোধ না করা এবং আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ রয়েছে। এই মামলায় অর্ণব ছাড়া বাকি দুই অভিযুক্ত হলেন ফিরোজ শেখ ও নীতীশ সারদা। তিনজনকেই আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।  

[আরও পড়ুন: অজানা ব্যক্তির নির্দেশে বাবার ফোনে অ্যাপ ডাউনলোড ছেলের, গায়েব ৯ লক্ষ টাকা]

২০১৮ সালে মুম্বইয়ের এক ইন্টেরিয়র ডিজাইনার এবং তাঁর মা আত্মহত্যা করেন। মুম্বই পুলিশের দাবি, তাঁদের সুইসাইড নোটে নাকি বলা হয়েছিল, অর্ণব গোস্বামী ৫ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা শোধ না করায় তাঁদের আর্থিক অনটনে পড়তে হয়েছে। সেকারণেই তাঁরা আত্মহত্যা করছেন। তারপরই অর্ণবের বিরুদ্ধে ঋণখেলাপি এবং আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ দায়ের করেন ওই ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের ছেলে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে