২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৪-র সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশজুড়ে প্রচারে ঝড় তুলেছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ‘ব্র্যান্ড নমো’ চর্চা শুরু হয় দেশের ঘরে ঘরে৷ আবার উনিশে আসছে আরও একটি লোকসভা নির্বাচন৷ তবে এবার লড়াইটা সহজ নয় গেরুয়া শিবিরের পক্ষে৷ জোট বেঁধে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে প্যাঁচে ফেলতে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন কংগ্রেস, তৃণমূল-সহ বিরোধীরা৷ তবে প্রতিকূল পরিস্থিতিকে নিজেদের পক্ষে আনতে কোনও কসুর করছে না ‘টিম মোদি’৷ ২০১৪-র মতোই ‘ব্র্যান্ড নমো’কে তুলে ধরতে তৎপর তাঁরা৷ লক্ষ্যপূরণে, প্রথম রাজনৈতিক দল হিসাবে দলের নেতা, নরেন্দ্র মোদির নামে টুপি, জামা, ঘড়ির ব্যবসায় নামল বিজেপি৷

[ফোনে থাকছে চারটি ক্যামেরা! গ্রাহকদের মন পেতে যুগান্তকারী সৃষ্টি রেডমির]

আসন্ন লোকসভাকে মাথায় রেখে জনসংযোগ বাড়াতে ইতিমধ্যেই ‘নমো অ্যাপ’ নিয়ে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষের স্মার্টফোনে জায়গা করে নিয়েছে এই অ্যাপ৷ যার সাহায্যে মাঝেমাঝেই তাঁদের কাছে নিজের বার্তা পৌঁছে দেন খোদ প্রধানমন্ত্রী৷ লাইভ অনুষ্ঠানে শুনে নেন অনুগামীদের অভাব-অভিযোগ, পরামর্শ৷ জানা গিয়েছে, সোমবার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ৬৮তম জন্মদিন থেকে এই অ্যাপের মাধ্যমেই বিক্রি শুরু হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নামাঙ্কিত জামা, ঘড়ি, টুপি ইত্যাদি সরঞ্জাম৷ ভারতবর্ষের কোনও রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে এই প্রথম এমন ব্যবসায়িক পদক্ষেপ নেওয়া হল৷

[বাজারে আসছে পাঁচটি রিয়ার ক্যামেরা যুক্ত Nokia 9]

রাজনৈতিক মহলের মতে, এই কৌশলের মাধ্যমে কেবল ব্যবসা করতেই নামেনি পদ্ম শিবির একথা খুবই স্পষ্ট৷ কারণ তাঁদের প্রথম এবং মূল উদ্দেশ্য হল, লাগাতার বিরোধী আক্রমণে নড়বড়ে দলীয় ভিতকে উনিশের আগে আরও একবার শক্ত করে নেওয়া৷ পাশাপাশি, ‘আবকি বার মোদি সরকার’-এর মতো ‘NAMO Again’, ‘NAMO NAM’ ও ‘India MODIfied’ স্লোগানগুলিকে দেশের জনগণের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া৷ জানা গিয়েছে, নমো অ্যাপের মাধ্যমে এই ব্যবসার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ‘FlyKart’ ই-কমার্স সংস্থাকে৷ উপার্জিত অর্থ জমা পড়বে কেন্দ্রের ‘ক্লিন গঙ্গা ফান্ডে’৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং