BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চারদিনে ৯ হাজার বোমাবর্ষণ বিএসএফের, ধুলোয় মিশল বহু পাক ঘাঁটি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 24, 2018 7:09 am|    Updated: January 24, 2018 7:09 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘একের জবাব পাঁচ’। এমনটাই নির্দেশ ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের। সেই কথাই অক্ষরে অক্ষরে পালন করল বিএসএফ। কার্যত অগ্নিবৃষ্টি হল নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে পাক সেনাঘাঁটিগুলির উপর।

সেনা সূত্রে খবর, গত চারদিনে পাক সেনার ছাউনি লক্ষ্য করে প্রায় ৯ হাজার মর্টার ছুড়েছে বিএসএফ। ওই হামলায় এখনও পর্যন্ত মারা গিয়েছে ছয় পাক রেঞ্জার্স। ধুলোয় মিশে গিয়েছে পাক সেনার বহু ক্যাম্প, অস্ত্রভাণ্ডার ও জ্বালানির গুদাম। লাগাতার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে চলেছে পাকিস্তান। জম্মু ও কাশ্মীরে ভারতীয় জওয়ানদের লক্ষ্য করে হামলা চালচ্ছে পাক স্নাইপাররা। চলছে প্রবল গোলাবর্ষণ। পাক নৃশংসতায় প্রাণ হারিয়েছেন সাত জওয়ান-সহ সহ ১২ জন ভারতীয় নাগরিক।

[‘পাকিস্তানে ঢুকে মারো, পাশে আছি’, মোদিকে আশ্বাস নেতানিয়াহুর]

রবিবার রাত থেকে আরও বেড়ে যায় পাক উসকানি। তারপরই পাক ‘ফায়ারিং পজিশন’গুলিকে চিহ্নিত করে বিএসএফ।দ্রুত আনা হয় দূরপাল্লার ৮ এমএম মর্টার বা ‘এরিয়া ওয়েপন’গুলিকে। প্রায় ৮ কিলোমিটার পর্যন্ত গোলা ছুড়তে পারে এই অস্ত্র। একই সঙ্গে কাজে লাগানো হয় ৫১ এমএম মর্টারও। এরপরই পাক ঘাঁটিগুলিকে লক্ষ্য করে কয়েকদিনে প্রায় ৯ হাজার মর্টার শেল ছোড়েন ভারতীয় জওয়ানরা। এই বিধ্বংসী প্রত্যাঘাতে দিশাহীন হয়ে ছাউনি ছেড়ে পালায় পাক সেনা।

জম্মুতে প্রায় ১৯০ কিলোমিটার দীর্ঘ আন্তর্জাতিক সীমান্তে ক্রমশ পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে তুলছে পাকিস্তান। এমনটাই জানিয়েছেন বিএসএফ ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের শীর্ষ আধিকারিকরা। তাঁরা আরও জানান, জম্মুর ‘চিকেন নেক’ বলে পরিচিত মাকওয়াল ও কানাচাক এলাকায় ভয়াবহ বোমাবর্ষণ করছে পাক সেনা। শীর্ষ পাক সেনা আধিকারিকদেরও ওই এলাকায় ঘোরাফেরা করতে দেখা গিয়েছে। ফলে নেপথ্যে কোনও বড়সড় চক্রান্ত থাকতে পারে।

বিএসএফ-এর এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, সীমান্তে শান্তিরক্ষা নিয়ে আলোচনা করতে চাইলে তা এড়িয়ে গিয়েছে পাক রেঞ্জার্সরা। জম্মুর সমস্ত বিএসএফ ঘাঁটিগুলিতে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে সীমান্তে ‘অ্যাম্বুশ পেট্রল’ বা টহলদার বাহিনীর সংখ্যাও বাড়িয়ে তোলা হয়েছে। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তের সীমান্তে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ। উল্লেখ্য, একজন ভারতীয় শহিদের বদলে পাঁচ পাক সেনাকে খতম করা হোক। বিএসএফকে এমনটাই নির্দেশ দিয়েছিলেন রাজনাথ সিং।উসকানি বন্ধ না করলে ভারত যে পাকিস্তানকে রেয়াত করবে না তা স্পষ্ট করে দিলেন তিনি, বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[‘এক শহিদের বদলে দশ পাকিস্তানি জান’, হুঁশিয়ারি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement