BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘বিতর্কিত’ তেজ বাহাদুরের ছেলের রহস্যমৃত্যু, আত্মহত্যার তত্ত্ব খারিজ পরিবারের

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 18, 2019 12:51 pm|    Updated: January 18, 2019 1:50 pm

BSF Jawan's son found dead

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেনাবাহিনীতে দেওয়া খাবারের গুণগত মান নিয়ে গত বছরই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন প্রাক্তন বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব৷ বিস্ফোরক অভিযোগের জেরে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে দেওয়া হয় ওই জওয়ানকে৷ উদ্ধার হল বিতর্কিত ওই জওয়ানের ছেলে রোহিত কুমারের গুলিবিদ্ধ দেহ৷ বৃহস্পতিবার বন্ধ ঘরের দরজা ভেঙে তার গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার করা হয়৷ পুলিশ জানিয়েছে, লাইসেন্সপ্রাপ্ত বন্দুক দিয়েই নিজেকে গুলি করেছে রোহিত কুমার৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ৷ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে৷

মেঘালয়ের অভিশপ্ত খনিতে দেহের সন্ধান পেল নৌসেনা

বছর কুড়ির যুবক রোহিত কুমার দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিল৷ রোহিতের মৃত্যুর সময়ে বাড়িতে কেউ ছিলেন না বলে জানা গিয়েছে। তেজ বাহাদুর কুম্ভমেলায় গিয়েছিলেন। তাঁর স্ত্রী শর্মিলাও ব্যক্তিগত কাজে বাইরে ছিলেন। ফিরে এসে হাজার ডাকাডাকিতেও ছেলের সাড়া পাননি তাঁরা৷ চিৎকার চেঁচামেচিতে পড়শিরা জড়ো হয়ে যান৷ পরে তাঁরাই ফোন করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছায়৷ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়৷ প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান আত্মহত্যাই করেছে রোহিত। তবে রোহিতের মা শর্মিলা পুলিশের আত্মহত্যার দাবি মানতে চাননি। দিনদুয়েক আগেই রোহিত কলেজ থেকে বাড়ি ফিরেছে বলে পুলিশকে জানিয়েছেন তিনি।

তেজ বাহাদুর  ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে বিএসএফের খাবার নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেন। বিদ্যুতের গতিতে ভাইরাল হয়েছিল সেটি। তিনি বলেছিলেন, প্রায় না খেয়েই দেশরক্ষার কাজ করতে হয় জওয়ানদের। অভিযোগ করেন, বিএসএফের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা তাঁদের জন্য বরাদ্দ খাদ্যসামগ্রী বাজারে বিক্রি করে দেন। এই ভিডিও নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়৷ নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকও। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দেন রাজনাথ সিং। এরপরই বিএসএফ ছাউনি থেকে তাঁকে হেডকোয়ার্টারে বদলি করা হয়। শুধু তাই নয়, তদন্তের স্বার্থে তেজ বাহাদুরকে অন্যত্র সরানোর কথা বলেন বিএসএফের আইজি ডি কে উপাধ্যায়। এই ঘটনার সঙ্গে তাঁর ছেলে রোহিতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর কোনও যোগ রয়েছে কী না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে