BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

চালক মুসলিম হওয়ায় ওলা বুকিং বাতিল করলেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্য

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 22, 2018 8:26 pm|    Updated: October 31, 2018 2:10 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিত্যদিন বাসে-ট্রামে ভিড়ে চাপাচাপি করে যাতায়াতের কষ্ট লাঘব করতে লাক্সারি ক্যাবের জুড়ি মেলা ভার৷ যাঁরা ওলা বা উবরের মতো অ্যাপ নির্ভর ক্যাব বুক করেন, তাঁরা জানেন যে এই ধরনের ক্যাবগুলি বুকিংয়ের পর মোবাইলে ড্রাইভারের নাম ও ফোন নম্বর চলে আসে৷ ঠিক এভাবেই অভিষেক মিশ্রর মোবাইলে চলে এসেছিল ওলা চালকের নাম ও নম্বর৷ নিজেকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্য বলে দাবি করা অভিষেক মিশ্র দেখেন তাঁর জন্য যে চালককে বরাদ্দ করা হয়েছে তিনি মুসলিম, নাম মাসুদ আলম৷

[মহারাষ্ট্রে বৃহত্তম মাও-দমন অভিযানে নিকেশ ১৪ মাওবাদী]

নাম দেখা মাত্রই বুকিংটি বাতিল করেন অভিষেক৷ শুধু তাই নয়, ফলাও করে সে কথা নিজের ভেরিফায়েড টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্টও করেন৷ তাঁর টুইটটি ঘিরে শোরগোল পড়ে যায় মাইক্রো ব্লগিং সাইটে৷ কিন্তু কেন আচমকা ওলা বুকিংটি বাতিল করলেন উগ্র হিন্দুত্ববাদী মনস্ক অভিষেক? নিজে সে কথা টুইটারে লিখেছেন তিনি৷ তাঁর বক্তব্য, ‘কোনও জেহাদির কাছে আমার টাকা যাক আমি চাই না৷’ টুইটটি মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়৷ তাঁর অনুগামীরা দু’ভাগ হয়ে পক্ষে ও বিপক্ষে তর্ক জুড়ে দেন৷ এখন প্রশ্ন হল, একটিমাত্র টুইট নিয়ে এত বিতর্ক কেন? কারণ, অভিষেক যে সে কেউ নন৷ রীতিমতো বিজেপির একাধিক নেতা ও কেন্দ্রীয় নেতা ঘনিষ্ঠ৷ তাঁকে টুইটারে ‘ফলো’ করেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন, কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান-সহ অন্যান্য বিজেপি নেতারা৷

ওলা সংস্থার কাছে এই প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে, সংস্থাটির এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘চালকদের ধর্ম নিয়ে আমরা ভাবি না৷ সম্প্রদায়ের ভিত্তিতে আমরা ডিউটি ভাগাভাগি করি না৷’ এরপর একটি টুইটও করে ওলা৷ ওলার এই বক্তব্যকে সমর্থন জানাতে অনেকেই এগিয়ে আসেন৷ বিতর্কের মুখে পড়ে অভিষেক ফের টুইটারে লেখেন, ‘অনেকে আমাকে আক্রমণ করছেন৷ কিন্তু আমার কি বেছে নেওয়ার অধিকার থাকতে পারে না? কেউ কেউ গাড়িতে হনুমানজির পোস্টার লাগিয়ে হিন্দু দেবদেবীর সম্মান নিয়ে খেলা করতে পারে, কাঠুয়া কাণ্ডের পর হিন্দু দেবদেবীদের ছোট করে দেখানোর চেষ্টা করতে পারে, তাদের মনে রাখতে হবে উত্তর দেওয়ার সময় চলে এসেছে৷’ এই প্রথম নয়, ২০১৫-তেও একবার এক ব্যক্তি হিন্দু চালক চেয়েছিলেন ওলার কাছে৷ সেবারও ওলা উত্তর দেয়, ‘কারও ধর্মের উপর ভিত্তি করে আমরা ভেদাভেদ করি না৷’ সেবার ওলা-র এই বক্তব্যকে সমর্থন জানাতে এগিয়ে আসে প্রতিদ্বন্দ্বী উবর৷

[কাবুলে ভোটার রেজিস্ট্রেশনের লাইনে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে মৃত অন্তত ৩১]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে