২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

কেরলে হাতির মৃত্যু নিয়ে মুখে খুলে বিপাকে মানেকা, সাম্প্রদায়িক উসকানির অভিযোগে মামলা দায়ের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: June 6, 2020 10:30 am|    Updated: June 6, 2020 10:30 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেরলে গর্ভবতী হাতির মৃত্যু নিয়ে ভিত্তিহীন মন্তব্য করে সাম্প্রদায়িক হিংসার উসকানি দিয়েছেন মানেকা গান্ধী, এমন অভিযোগ তুলেই শুক্রবার সংশ্লিষ্ট বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হল।

বিজেপি সাংসদ মানেকা গান্ধীর বিরুদ্ধে ভুয়ো মন্তব্য এবং সাম্প্রদায়িক অশান্তির প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার মামলা দায়ের হল কেরলে। মালাপ্পুরম জেলায় বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে অন্তত ৭টি অভিযোগ জমা পড়ার ভিত্তিতেই এই মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। অভিযোগ, গর্ভবতী হাতির মৃত্যু নিয়ে মানেকার ভুয়ো মন্তব্যের জেরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিঘ্নিত হতে পারে। মালাপ্পুরম জেলার পুলিশ আধিকারিক আইপিএস আব্দুল করিম খবর নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ ধারায় বিজেপি নেত্রী তথা সাংসদ মানেকা গান্ধীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়েছে। সংবিধানের এই ধারায় জাতি, ধর্মকে অযথা শাণিত করে সাম্প্রদায়িক অশান্তি বাঁধানোর প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে মানেকার বিরুদ্ধে।

বুধবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকাকে একটি ভিডিওতে বলতে দেখা গিয়েছে, “দেশের মধ্যে সব থেকে হিংসাত্মক জেলা হল কেরালার মালাপ্পুরম।” এমনকী টুইটেও তিনি লিখেছেন, “অপরাধপ্রবণ কাজের জন্যই মালাপ্পুরম কুখ্যাত। বিশেষ করে এই অঞ্চলে পশুদের সঙ্গে যা অপরাধ হয়, তার বিরুদ্ধে কোনওদিনই কোনও পদক্ষেপ করা হয় না। আর সেখানকার বাসিন্দারাও তাই পশুদের উপর এই অত্যাচার চালিয়েই যায় দীর্ঘদিন ধরে।”

[আরও পড়ুন: একহাতে বন্দুক ও অন্যহাতে দুধের প্যাকেট, শিশুর খাবার পৌঁছে দিয়ে ‘হিরো’ আরপিএফ জওয়ান]

প্রসঙ্গত, গত ২৯ মে গর্ভবতী হাতির মৃত্যু ঘটে পালাক্কাড় জেলায়। অন্যদিকে, মালাপ্পুরম মুসলিম অধুষ্যিত অঞ্চল হওয়ায় স্বাভাবিকবশতই হাতির মৃত্যু পর থেকে গত দু’-তিন দিন ধরে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। নেটিজেনদের একাংশ সাম্প্রদায়িক আলোচনাকে একধারে প্রশ্রয় দিয়ে গিয়েছেন। একদল মানুষ আবার এই ঘটনার ভিত্তিতে সাম্প্রদায়িক রং চড়াতেও ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এমতাবস্থায়, সাম্প্রদায়িক হানাহানি শুরু হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের রিপোর্টের সঙ্গেও মানেকার বক্তব্যের মিল নেই। খুন, হত্যার চেষ্টা, পণের জন্য খুন, চুরি, ছিনতাই, ধর্ষণ এই জাতীয় অপরাধে ভারতের প্রথম ৩০০টি জেলার মধ্যে নাম নেই মালাপ্পুরমের। এপ্রসঙ্গে জেলার এক আইনজীবীর অভিযোগ, মানেকা গান্ধীর অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন। মালাপ্পুরম জেলা ও জেলার বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন বক্তব্য পেশ করেছেন। প্রশ্ন উঠেছে, মুসলিম অধ্যুষিত বলেই কি বিজেপি সাংসদের এই নিশানা? তাই মানেকা গান্ধীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

[আরও পড়ুন: প্রকাশ্যে আধিকারিককে জুতোপেটা, বিজেপি নেত্রীর ভিডিও ভাইরাল হতেই বিতর্কের ঝড়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement