১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিদেশে ঘুরতে যেতে চান? কিন্তু আর্থিক সামর্থ্যে কুলোচ্ছে না? আপনার জন্য সুখবর যদি আপনি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী হন। এবার সরকারি সাহায্যে বিদেশ যাওয়ার সুযোগ আসতে চলেছে আপনাদের জন্য।

[‘গোরক্ষার নামে মুসলিম নিধন বন্ধ হোক, নাহলে দেশভাগ আসন্ন’]

কেন্দ্রীয় সরকার খুব শীঘ্রই কর্মচারীদের জন্য সুখবর আনতে চলেছে। মধ্য এশিয়ার মোট পাঁচটি দেশে ভ্রমণ এবার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য হতে চলেছে এক্কেবারে কম খরচায়। কাজাখস্তান, তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান, কিরঘিজস্তান এবং তাজিকিস্তানে ভ্রমণকে এবার লিভ-ট্র্যাভেল-কনসেশন অর্থাৎ এলটিসির অধীনে আনতে চলেছে কেন্দ্র। এর অধীনে আবেদন করলে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীরা ভ্রমণ সংক্রান্ত সমস্তরকম সাহায্য পান। ছুটি তো বটেই দেওয়া হয় টিকিটের মূল্যও। এই পাঁচটি দেশ এলটিসির অধীনে চলে এলে এই দেশগুলিতে যাওয়ার টিকিটও বিনামূল্য পাবেন কেন্দ্রের কর্মীরা। এই প্রকল্পে উপকৃত হবেন প্রায় ৪৮ লক্ষ ৪১ হাজার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মী।

[আধার নম্বর নিয়ে তথ্য ফাঁস করে দেখান, চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বিপাকে ট্রাই প্রধান]

কিন্তু এই পাঁচটি দেশকেই কেন বেছে নেওয়া হল। বিদেশমন্ত্রক সূত্রের খবর খুব সচেতনভাবেই বেছে নেওয়া হয়েছে এই পাঁচটি দেশকে। ভারতের খুব কাছে অবস্থান করা সত্ত্বেও এই পাঁচটি দেশে ভারতীয়দের যাতায়াত সবচেয়ে কম। ভারতীয় বংশোদ্ভুত নাগরিকও খুব বেশি নেই এই দেশগুলিতে। কিন্তু মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই দেশগুলির সঙ্গেও ভাল সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করা হচ্ছে। বিদেশমন্ত্রকের আধিকারিকদের ধারণা, এই নতুন সুবিধা চালু করলে নাগরিক স্তরে দেশগুলির সঙ্গে যোগাযোগ আরও দৃঢ় হবে।

[আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মোদিকেই ফের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চান কঙ্গনা]

যদিও, সরকারের এই প্রকল্পের সমালোচনা করছে বুদ্ধিজীবীমহলের একাংশ। অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, যে দেশে খোদ রাজধানীতে খাদ্যের অভাবে শিশুমৃত্যুর ঘটনা ঘটে সে দেশে সরকারি কর্মীদের বিলাসিতার পিছনে এত খরচ করা কতটা যুক্তিযুক্ত? এই টাকা হয়তো আরও জনমুখী কোনও প্রকল্পের পিছনে খরচ করা যেত। রাজনৈতিক মহল অবশ্য এর মধ্যে রাজনীতি দেখছে। আসলে লোকসভা ভোট আসন্ন, তাই বাড়তি সুবিধা দিয়ে লক্ষ লক্ষ সরকারি কর্মীর মন পেতে চাইছেন মোদি, বলছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং