BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

২০১৫ সালেই নাগা সার্বভৌমত্বে সম্মতি দিয়েছে কেন্দ্র, বিস্ফোরক দাবি বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 15, 2020 11:52 am|    Updated: August 15, 2020 11:55 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘৫ বছর আগেই ভারত সরকার নাগাল্যান্ডের সার্বভৌমত্বে স্বীকৃতি দিয়েছে। নাগারা ভারতের সঙ্গে সহাবস্থান করবে। কিন্তু কোনওদিন ভারতের সঙ্গে মিশে যাবে না।’ স্বাধীনতা দিবসের একদিন আগে ফের পৃথক নাগালিমের দাবিতে সরব বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন এনএসসিএন (আইএম) নেতা থুইঙ্গালাং মুইভা (Thuingaleng Muivah)। যিনি কিনা দীর্ঘদিন ধরেই পৃথক নাগাল্যান্ডের দাবিতে সরব হয়ে আসছেন। প্রতিবছরের মতো এবছরও ১৪ আগস্ট এই বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনটি নিজেদের মতো পৃথক ‘নাগা জাতীয় পতাকা’উত্তোলন করে ‘নাগা স্বাধীনতা দিবস’ পালন করেছে। যা নয়াদিল্লির জন্য রীতিমতো অস্বস্তিকর।

নাগাল্যান্ড, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, মিজোরাম, অসম ও মায়ানমারের বিস্তীর্ণ অঞ্চল নিয়ে নাগা স্বাধীনভূমি বা ‘নাগালিম’ গড়ার ডাক বহুদিনের৷ এই দাবিতে অনেক দিন ধরেই জঙ্গি আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে নাগা বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন এনএসসিএন (NSCN)৷ সংগঠনটি দু’ভাগ হয়ে যাওয়ার পর মুইভা গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে কেন্দ্র৷ কিন্তু সমস্ত আলোচনার থমকে আছে এনএসসিএন(আইএম)-এর দুটি দাবির উপর। পৃথক পতাকা এবং পৃথক সংবিধান। যা কিছুতেই মানতে নারাজ দিল্লি। ২০১৫ সালে এই বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনটির সঙ্গে শান্তিচুক্তি করে মোদি সরকার। তারপর এই সংগঠনটি জঙ্গি আন্দোলন প্রত্যাহারেও রাজি হয়। কিন্তু এবছর স্বাধীনতা দিবসের আগে আরও একবার নিজেদের পুরনো দাবিতে সরব হলেন এনএসসিএন (আইএম) নেতা থুইঙ্গালাং মুইভা। তাঁর দাবি, ২০১৫ সালে যে চুক্তি হয়েছিল তাতে ভারত সরকার নাগাল্যান্ডের পৃথক জাতীয় পতাকা এবং আলাদা সংবিধানের দাবিতে স্বীকৃতি দেয়। এমনকী দুই দেশের পৃথক সহাবস্থানের কথাও বলা হয়। যদিও নাগা সংগঠনের এই দাবি কতটা সঠিক তা বোঝা সম্ভব নয়। কারণ, এই সংগঠনটির সঙ্গে কি চুক্তি হয়েছিল তা প্রকাশ করেনি সরকার।

[আরও পড়ুন: সীমানা নির্ধারণ সম্পূর্ণ হলেই নির্বাচন কাশ্মীরে, স্বাধীনতা দিবসে ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর]

গতকাল অর্থাৎ ১৪ আগস্ট থুইঙ্গালাং মুইভা ‘নাগা স্বাধীনতা দিবস’ উপলক্ষে নিজের বক্তৃতায় দাবি করেন,”আমাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ আমাদের জাতীয় নীতির উপরই নির্ভরশীল। শত্রুদের নির্দেশ মেনে আমরা চলব না।” মুইভার সাফ কথা, ভারত সরকার যতদিন না পৃথক পতাকা আর সংবিধানের দাবি মেনে নিচ্ছে, ততদিন নাগা সমস্যার স্থায়ী সমাধান সম্ভব নয়। মুইভার দাবি ৫ বছর আগে ভারত সরকারের সঙ্গে তাঁদের যে চুক্তি হয়েছিল, তাতেই বলা আছে দুটি জাতি শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান করবে। এবং সার্বভৌমত্বের অধিকার ভাগ করে নেবে। এতেই বোঝা যায় ভারত সরকার নাগাল্যান্ডের স্বাধীনতার দাবি মেনে নিয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement