১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মদ্যপান নিয়ে বচসার জেরে কমান্ডারকে গুলি করে খুন করল ছত্তিশগড়ের স্পেশাল অক্সিলিয়ারি পুলিশ(সিএসএপি) কর্মী। তারপর নিজের ইনশাস রাইফেল থেকে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী হল। এই ঘটনায় জখম হয়েছেন তার আরও দুই সহকর্মী। সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়খণ্ডের রাজধানী রাঁচি সংলগ্ন খেলগাঁও ট্রানজিট ক্যা্ম্পে।

[আরও পড়ুন: মুসলিমরা আবেদন করলেও বিবেচনা করা হবে, নাগরিকত্ব ইস্যুতে সুর নরম অমিতের!]

এপ্রসঙ্গে রাঁচি শহরের ডেপুটি পুলিশ সুপার অমিত কুমার বলেন, ছত্তিশগড় স্পেশাল অক্সিলিয়ারি পুলিশের ৪ নম্বর ব্যাটেলিয়নের সদস্যরা নির্বাচনের জন্য ঝাড়খণ্ডে এসেছেন। রাঁচির খেলগাঁও ট্রানজিট ক্যাম্পে তাঁদের থাকার
ব্যবস্থা করা হয়েছিল। সোমবার সকালে সেখান থেকে সবাই তৃতীয় দফার নির্বাচনে নিরাপত্তা দিতে হাজারিবাগের যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছিলেন। আচমকা এক সদস্য বিক্রম রাজওয়াড়ে নিজের ইনশাস রাইফেল থেকে তার
কোম্পানি কমান্ডার মেলারাম কুরেকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এর ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। এই দৃশ্য দেখে রাজওয়াড়েকে আটকাতে এগিয়ে আসেন তার দুই সহকর্মী বেনুধর ধূপ ও নন্দকিশোর কুশওয়া। তখন নিজের
চারিদিকে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে শুরু করে বিক্রম। এতে দুজনেই জখম হন। এরপরই হাতে থাকা রাইফেল থেকে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী হয় সে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন পুলিশ সুপার সৌরভ-সহ উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিকরা।

সিএসএপির আধিকারিকদের অনেকে বলছেন, বিক্রম রাজওয়াড়ে মাঝে মধ্যেই মদ খেত। তারপর গন্ডগোল করত। কিছুদিন আগেই মদ্যপ অবস্থায় সহকর্মীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েছিল। এরপরই দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার কুরে উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের কাছে অভিযোগ জানান। বলেন, নির্বাচনের ডিউটি করাকালীন একদল জওয়ান মদ খেয়ে গন্ডগোল করছে। বাহিনীর নিয়ম ভাঙছে। এই ঘটনার পরে কিছু জওয়ানকে অন্য জায়গায় সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তারপরও যে ঝামেলা মেটেনি, সোমবারের ঘটনা তারই প্রমাণ!

[আরও পড়ুন: হায়দরাবাদ কাণ্ডের পর বিশেষ সতর্কতা, মহিলা কর্মীদের রাতের শিফট বন্ধ রেলে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং