BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘জাঠদের চেহারা ভাল, বুদ্ধি কম’, ফের বেফাঁস মন্তব্য বিপ্লব দেবের, চাপে পড়ে চাইলেন ক্ষমা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 21, 2020 2:04 pm|    Updated: July 21, 2020 2:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বেফাঁস মন্তব্য করে বিপাকে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। আগরতলার প্রেস ক্লাবে বিপ্লব দেব জাঠদের নিয়ে অত্যন্ত অসংবেদনশীল একটি মন্তব্য করেছিলেন। তাঁর ওই বক্তব্যের ভিডিও টুইটারে পোস্ট করে তাঁকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলেছিলেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা। এ নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠতেই তড়িঘড়ি ক্ষমা চেয়ে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী। তবু সমালোচনা থামেনি।

বিতর্ক আর বিপ্লব দেব যেন অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। ২০১৮ সালে ত্রিপুরায় দীর্ঘ বামশাসনের অবসান ঘটিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কুরসিতে বসার পর থেকেই তাঁর যে কোনও মন্তব্য ঘিরে সমালোচনার শেষ নেই। বারবারই লাগামহীন মন্তব্য করে পক্ষান্তরে নিজের ইমেজই ম্লান করেছেন বলে মনে করে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। তবু সেই ট্র্যাডিশন চলছে। এবারের বিতর্কের তালিকায় নবতম সংযোজন জাঠদের নিয়ে মন্তব্য। আগরতলার প্রেস ক্লাবে তিনি বলেন, ”হরিয়ানার জাঠদের চেহারা খুব ভাল, হৃষ্টপুষ্ট। কিন্তু বুদ্ধি কম। বাঙালির সঙ্গে ওরা বুদ্ধিতে পেরে ওঠে না। বুদ্ধিতে বাঙালিরা সবসময় এগিয়ে।” মুখ্যমন্ত্রী বাঙালির বুদ্ধির তারিফ করতে গিয়ে যে এমন একটি তুলনা করবেন, তা মোটেই ভাবা যায়নি। অথচ তিনি করলেন তাই। হয়ত এই তুলনার সময় বুঝতেও পারেননি যে অন্য সম্প্রদায়কে কতটা অবজ্ঞা, অবহেলার মধ্যে ফেলে দিলেন।

[আরও পড়ুন: রেল স্টেশনগুলিকে আধুনিক করে নিলামে তোলার পরিকল্পনা কেন্দ্রের, জানালেন পীযূষ গোয়েল]

সেদিন তাঁর এই বক্তব্যের ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা। এহেন মন্তব্যের জন্য বিপ্লব দেবকে ক্ষমা চাইতে হবে, এই দাবি তোলেন তিনি। চাপে পড়ে এরপর ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী ক্ষমা চেয়ে নেন। তিনি বলেন, ”আমার বন্ধুদের মধ্যে অনেক জাঠ রয়েছেন। তাঁদের কাউকে আমি আঘাত করে কিছু বলতে চাইনি। তাঁরা যদি আহত হয়ে থাকেন, আমি ক্ষমা চাইছি।” এও বলেন যে জাঠদের সঙ্গে তাঁর সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক। এসব বলে তিনি ড্যামেজ কন্ট্রোলের আপ্রাণ চেষ্টা করেন। তবে সমালোচনা থেমে থাকেনি। কারণ, বিপ্লব দেবের আগেকার বিতর্কিত মন্তব্যের অধিকাংশই এখনও অনেকের মনে আছে। কখনও মহাভারতের সময় ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট যোগাযোগ ব্যবস্থা নিয়ে কাণ্ডজ্ঞানহীন মন্তব্য তো কখনও জলে হাঁস চড়লে অক্সিজেন তৈরির মতো তত্ব খাড়া করে হাসির খোরাক হয়েছেন বিজেপি শাসিত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী। তবে জাঠদের নিয়ে মন্তব্যে হাসি নয়, রোষানলেই পড়েছেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement