BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মোদি-মমতা থেকে শচীন-বোবদে, ১০ হাজার ভারতীয়র উপর নজর রাখছে চিনা সংস্থা!

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 14, 2020 2:47 pm|    Updated: September 16, 2020 9:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১০ হাজার বিশিষ্ট ভারতীয়র উপর নজরদারি চালাচ্ছে চিনা (China) তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা। এই তালিকায় রয়েছেন রাষ্ট্রপতি, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi), পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bannerjee)-সহ বহু বিশিষ্ট ভারতী। বাদ পড়েননি ক্রিকেটার শচীন তেণ্ডুলকর। ওই সংস্থা চিনা সরকারকে তথ্য পাচার করছে বলেও সর্বভারতীয় সংবাদপত্রের এক প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে।

ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাজনীতি-বিনোদন-ক্রীড়া-সংবাদমাধ্যম- এমনকী, অপরাধী ও জঙ্গিদের সম্পর্কেও তথ্য সংগ্রহ করছে শেনহুয়া ডেটা ইনফরমেশন টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেড। দক্ষিণ পশ্চিম চিনের গুয়াংডং প্রদেশের শেনঝেন শহরের ওই সংস্থার অন্যতম ‘ক্লায়েন্ট’ শি জিনপিং সরকার, পিপল্‌স লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) এবং চিনা কমিউনিস্ট পার্টি। যদিও এ নিয়ে সংস্থার কাছে তথ্য জানতে চাওয়া হলে, অভ্যন্তরীণ ব্যাপার বলে তাঁরা এড়িয়ে যায়।

[আরও পড়ুন : লেজার গানে ছাই হয়ে যাবে দুশমন, ‘স্টার ওয়ার্স’-এর আদলে অস্ত্র তৈরির প্রস্তুতি ভারতের]

প্রতিবেদনটিতে দাবি করা হয়েছে, নজরদারির তালিকায় রয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ-সহ শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। বহু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী-সহ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা-সহ অনেক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের তথ্যও সংগ্রহ করছে ওই সংস্থা। তালিকায় বিচারপতি, সাংবাদিক, রাজনৈতিক দলের কর্মীদের পাশাপাশি রয়েছেন শচীনের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটারও। এই ব্যক্তিদের কাজকর্ম, তাঁদের গতিবিধি-সহ যাবতীয় তথ্য প্রতিনিয়ত সংগ্রহ করছে শেনহুয়ার ওই সংস্থা।

[আরও পড়ুন : ‘লকডাউনে কতজন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, জানেই না মন্ত্রক’, সংসদে জানাল কেন্দ্র]

কীভাবে এই তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে? জানা গিয়েছে, বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম, গবেষণাপত্র, প্রতিবেদন বা নিয়োগের বিজ্ঞপ্তির মতো বহুবিধ বিষয় থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এছাড়াও শেনহুয়ার নিজস্ব ‘মনিটরিং ম্যাপ’ও রয়েছে। শুধু ভারত নয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জার্মানি, সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মতো বহু দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের তথ্যও সংগ্রহ করে শেনহুয়া।

এই রিপোর্ট সামনে আসার পরই আসরে নেমেছে কংগ্রেস। রণদীপ সিং সূরজওয়ালা টুইটারে লিখেছেন, “মোদি সরকার কি জানতেন না, যে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বদের উপর চিন নজরদারি চালাচ্ছে?”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement