২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘নীতীশ কুমার ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন, বিহার চালাতে পারবেন না’, কটাক্ষ তেজস্বী যাদবের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 16, 2020 2:27 pm|    Updated: October 16, 2020 4:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ জেডিইউ নেতা নীতীশ কুমার (Nitish Kumar) ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। ওঁর পক্ষে আর বিহারের (Bihar) দায়িত্ব সামলানো সম্ভব নয়। শুক্রবার এভাবেই বিহারের মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করলেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব (Tejashwi Yadav)। পাটনায় সংবাদসংস্থা এএনআইকে তিনি বলেন, ‘‘বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। রাজ্যের ভার সামলানো ওঁর পক্ষে সম্ভব নয়। উনি উন্নয়ন, বেকারত্ব, শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরিকাঠামো ও দারিদ্র নিয়ে কথা বলতে চান না। উনি বলেন বিহারে জমি সমস্যায় শিল্প স্থাপন করা যায় না। তাই চাকরির সুযোগও তৈরি হয় না।’’

রাঘোপুর বিধানসভায় মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় নীতীশ কুমারকে আক্রমণ করে লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র বলেন, ‘‘আমরা আমাদের প্রতিশ্রুতি পালন করব। আমরাই সরকার গঠন করব। আমার আশাবাদী, বিহারের মানুষ আমাদের নির্বাচন করবে।’’

[‌আরও পড়ুন: বিহার নির্বাচন:‌ ২৪৩টি আসনেই প্রার্থী দিল মহাজোট, কংগ্রেসের চমক শত্রুঘ্ন’‌র পুত্র]

এদিকে তেজস্বীর দলকে পালটা আক্রমণ করেছে বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বিহারের বিজেপি সংগঠনের টুইটে জানিয়েছেন, ‘‘আরজেডি দপ্তর অতিক্রম করার সময় ঐতিহ্যের ছবি খুঁজছিলাম। কিন্তু কোথাও সেটা পেলাম না। ঐতিহ্যের কথা বললে মনে পড়ে যায় আতঙ্কের কথা, লুঠপাটের কথা, দুর্নীতির কথা। ছবি লুকিয়ে কি আপনারা আপনাদের ঐতিহ্য ভুলতে পারবেন?’’

শুক্রবার গেরুয়া শিবিরের দায়িত্বে থাকা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ জানিয়ে দিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিহার নির্বাচনের আগে সর্বোচ্চ ১২টি জনসভা করবেন। এই সভাগুলিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে থাকবেন নীতীশ কুমারও। থাকবেন এনডিএ-র অন্য সিনিয়র নেতারাও।

পুত্র লব সিনহার রাজনীতিতে আসা নিয়ে আজ টুইট করেছেন বাবা শত্রুঘ্ন সিনহা। বিহারের বাঁকিপুর বিধানসভা আসন থেকে কংগ্রেসের হয়ে লড়বেন তিনি। সেবিষয়ে প্রবীণ অভিনেতা টুইট করে জানালেন, সাধারণ মানুষের দাবিতে এবং কংগ্রেস নেতৃত্বের নির্দেশে তাঁর অভিনেতা ও চলচ্চিত্র নির্মাতা পুত্র এবার রাজনীতির আঙিনায়। প্রসঙ্গত, ২৪৩ আসন সম্বলিত বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিরোধী মহাজোটের মুখ্য দল লালুপ্রসাদের RJD লড়বে ১৪৪টি আসনে। কংগ্রেসকে দেওয়া হয়েছে ৭০টি আসন। এছাড়া CPI (M)‌ এবং CPI-কে দেওয়া হচ্ছে যথাক্রমে চার এবং ছ’‌টি আসন। CPI-ML পাবে ১৯টি আসনে লড়ার সুযোগ। মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী আরজেডি সুপ্রিমো লালুপ্রসাদের পুত্র তেজস্বী যাদব।

[আরও পড়ুন : মধ্যপ্রদেশে বিষমদ খেয়ে ১৪ জন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু, উচ্চপর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement