BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

রাতভর টানটান উত্তেজনার পর মধ্যপ্রদেশেও শেষ হাসি কংগ্রেসের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 12, 2018 9:02 am|    Updated: December 12, 2018 9:02 am

Cong did not reach majority in MP

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাতভর গণনার পর মধ্যপ্রদেশের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষিত হল। কংগ্রেস বা বিজেপি কোনও দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি মধ্যপ্রদেশে। সকাল থেকে বিজেপির থেকে এগিয়ে থাকলেও শেষপর্যন্ত ম্যাজিক ফিগারের থেকে দুটি আসন কম পেয়েই থামতে হল কংগ্রেসকে। জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, কমল নাথরা আটকে গেলেন ১১৪ আসনে। ক্ষমতায় ফেরার জন্য কংগ্রেসের প্রয়োজন আর মাত্র ২ জন বিধায়কের সমর্থন। বিজেপি পেয়েছে ১০৯টি আসন। অর্থাৎ ম্যাজিক ফিগার থেকে অনেকটাই দূরে গেরুয়া শিবির। অন্যদিকে, সমাজবাদী পার্টি ১ টি এবং বহুজন সমাজ পার্টি ২টি আসনে জয়ী হয়েছে। অন্যান্যদের মধ্যে জয়ী হয়েছেন ৪ জন নির্দল প্রার্থী।

[‘আজ হারিয়েছি, ২০১৯-এও হারাব’, সাফল্যের পর হুঁশিয়ারি রাহুলের]

মণিপুর, গোয়া, মেঘালয়ে একক বৃহত্তম দল হওয়া সত্ত্বেও সরকার গড়তে পারেনি কংগ্রেস। কংগ্রেসের থেকে বিধায়ক সংখ্যা অনেক কম থাকা সত্ত্বেও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তৎপরতায় ক্ষমতায় আসে বিজেপি। কিন্তু মধ্যপ্রদেশে সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি চাইছিল না কংগ্রেস। ইভিএমে গণনা হওয়া সত্ত্বেও মঙ্গলবার গভীর রাত পর্যন্ত চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ্যে আসেনি। তবে, একটা জিনিস পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। কংগ্রেস বা বিজেপি কোনও দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। তাই স্বাভাবিকভাবেই চূড়ান্ত ফলপ্রকাশের পর ঘোড়া কেনাবেচার একটি সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছিল। সেই সব সম্ভাবনা এড়াতেই ভোট গণনা শেষ হওয়ার আগেই মঙ্গলবার গভীররাতে রাজ্যপালের কাছে চিঠি দিয়ে সরকার গড়ার দাবি জানায় কংগ্রেস। কিন্তু সেই দাবি খারিজ করে দেন রাজ্যপাল আনন্দিবেন প্যাটেল। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, ভোটের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষিত না হওয়া পর্যন্ত কোনও দলের সঙ্গে দেখা করবেন না তিনি।

[রাজস্থান-ছত্তিশগড়ে জয় পেলেও এই বিষয়গুলি চিন্তায় রাখবে কংগ্রেসকে]

ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করতে হল সকাল পর্যন্ত। চূড়ান্ত আসন সংখ্যা স্পষ্ট হতেই হাত-শিবিরে খুশির হাওয়া। ম্যাজিক ফিগারে না পৌঁছাতে পারলেও সরকার গড়ার ব্যাপারে আশাবাদী কংগ্রেস। কারণ ইতিমধ্যেই সমজাবাদী পার্টি কংগ্রেসকে সমর্থনের কথা ঘোষণা করেছে। মায়াবতীর বিএসপির সমর্থন পাওয়ার ব্যপারেও আশাবাদী কমল নাথরা। অন্যদিকে, যে চারজন নির্দল প্রার্থী জয়ী হয়েছেন তাঁরা সকলেই বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস। সেই চারজনের সমর্থন পাওয়ার ব্যপারেও আশাবাদী মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেস। প্রদেশ কংগ্রেসের দাবি, অন্তত ১২০ জন বিধায়ক তাদের সমর্থন করবে। যদিও শেষমুহূর্তে ঘোড়া কেনাবেচা নিয়ে চিন্তিত প্রদেশ নেতৃত্ব। তাই দেরি না করে বুধবার বিকেলেই নবনির্বাচিত বিধায়কদের জরুরি বৈঠকে ডেকেছেন প্রদেশ সভাপতি কমল নাথ। বৈঠকের পরই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করবেন তিনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে