BREAKING NEWS

২৩ চৈত্র  ১৪২৬  সোমবার ৬ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ, রাষ্ট্রপতির কাছে ‘রাজধর্ম’ পালনের আবেদন কংগ্রেসের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 27, 2020 2:24 pm|    Updated: February 27, 2020 2:33 pm

An Images

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: দিল্লির হিংসা থামানোর জন্য সরাসরি রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হল কংগ্রেস (Congress)। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ নাগাদ রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে রামনাথ কোবিন্দের হাতে এই সম্পর্কিত একটি স্মারকলিপি তুলে দেন কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, প্রাক্তন স্বরাষ্ট্র ও অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম ও গুলাম নবি আজাদ-সহ কংগ্রেসের অন্য শীর্ষ নেতারা। রাষ্ট্রপতির কাছে গিয়ে দিল্লির হিংসাত্মক পরিস্থিতির জন্য সোজাসুজি কেন্দ্র ও দিল্লির সরকারকে দায়ী করেন তাঁরা। গত চারদিন ধরে দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় নির্বিচারে মানুষ খুন হলেও তারা নির্বাক দর্শকের মতো আচরণ করছে বলে অভিযোগ করেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর পদ থেকে অমিত শাহকে সরানোর দাবিও তোলেন।

 

রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপি দেওয়ার পর রাষ্ট্রপতি ভবনের বাইরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন কংগ্রেস নেতারা। জানান, রাষ্ট্রপতির কাছে এই বিষয়ে একটি স্মারকলিপি জমা দিয়ে ‘রাজধর্ম’ পালন করার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী বলেন, ‘মাননীয় রাষ্ট্রপতির কাছে আমরা নাগরিকদের জীবন, স্বাধীনতা ও সম্পত্তি রক্ষার অনুরোধ জানিয়েছে। এর পাশাপাশি তাঁর কাছে দিল্লির এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য আমরা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অপসারণের দাবি জানিয়েছি। তাঁকে আমরা বলেছি, গত চারদিন ধরে বিভিন্ন এলাকায় আগুন জ্বললেও কেন্দ্র এবং দিল্লির সদ্য নির্বাচিত সরকার নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।’

[আরও পড়ুন: বাড়ির ছাদে পেট্রল বোমার ভাণ্ডার! দিল্লির হিংসায় কাঠগড়ায় আপ নেতা]

 

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বলেন, ‘দিল্লিতে গত চারদিন ধরে যা চলছে তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। বিষয়টি গোটা দেশের জন্য একটি লজ্জাজনক পরিস্থিতির জন্ম দিয়েছে। এখনও পর্যন্ত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও ২০০ জনেরও বেশি মানুষ জখম। হিংসা রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার যে পুরোপুরি ব্যর্থ তা সবাই বুঝতে পারছে। এই পরিস্থিতিতে আমরা রাষ্ট্রপতিকে তাঁর ক্ষমতা ব্যবহার করে রাজধর্ম পালন করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি।’

[আরও পড়ুন: মেয়ের মৃত্যুর তদন্ত দাবির ফল! কাতর বাবার পিঠে লাথি পুলিশের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement