BREAKING NEWS

১২ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

চিন নিয়ে বলতে দিচ্ছে না সরকার! সংসদীয় কমিটির বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেলেন Rahul

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 15, 2021 10:33 am|    Updated: July 15, 2021 10:35 am

Congress MP Rahul Gandhi walked out of a Defence Committee meeting | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির বৈঠকেও আলোচনা করা যাবে না চিন (China) ইস্যুতে! সরকারের এই কঠোর অবস্থানে ফের সংসদের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক বয়কট করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার। এর আগেও একই ভাবে এই কমিটির বৈঠক থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন কংগ্রেস নেতা।

বুধবার বেলা ৩টে নাগাদ সংসদের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক ছিল। ওই বৈঠকে চিন এবং প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন রাহুল-সহ কংগ্রেস সদস্যরা। কিন্তু সরকারপক্ষের সাংসদরা সেই প্রস্তাব মানেননি। তাঁরা জানান, পূর্ব নির্ধারিত সূচির বাইরে এই বৈঠকে অন্য কোনও বিষয়ে আলোচনা করা যাবে না। কমিটির চেয়ারম্যান BJP সাংসদ জুয়াল ওরাম সাফ জানিয়ে দেন, এই কমিটির বৈঠকের এজেন্ডা ঠিক হয়ে গিয়েছে সেই ২৯ জুন। সেই এজেন্ডার বাইরে আলোচনা সম্ভব নয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও বারবার চিন ইস্যুতে কথা বলার চেষ্টা করছিলেন কংগ্রেস সাংসদ। তাঁর দাবি, এই মুহূর্তে চিন ইস্যুর থেকে গুরুত্বপূর্ণ আর কিছু হতে পারে না। কিন্তু কংগ্রেস নেতাকে শেষপর্যন্ত বক্তব্য রাখার অনুমতি দেননি চেয়ারম্যান ওরাম। তাতেই ক্ষুব্ধ রাহুল এবং কমিটির কংগ্রেসি সদস্যরা বেরিয়ে যান বৈঠক থেকে।

[আরও পড়ুন: বিরোধীদের প্রশ্নবাণ সামলানোর উপায় কী? নতুন মন্ত্রীদের গুরুমন্ত্র দিলেন PM Modi]

লাদাখে (Ladakh) চিনা আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকেই নতুন নতুন অভিযোগ তুলে কেন্দ্রকে কাঠগড়ায় তোলার চেষ্টা করেছেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি। প্রধানমন্ত্রীর নীতিকে বারবার প্রশ্নের মুখে ফেলেছেন তিনি। সংসদের বাদল অধিবেশনের আগে নিজের পুরনো অস্ত্রে আরও একবার শান দিয়ে নিলেন তিনি। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, গতকালই ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর (S Jaishankar) চিনা বিদেশমন্ত্রীকে একপ্রকার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। জয়শংকর সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, লাদাখ সীমান্তে একপেশেভাবে স্থিতাবস্থা বদলাতে চাইলে ভারত তা মেনে নেবে না।প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (LAC) নিয়ে আর যা যা সমস্যা আছে, তা দু’পক্ষ নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে যত দ্রুত মিটিয়ে নেবে, ততই দু’পক্ষের জন্য মঙ্গল। তবে, সেই আলোচনা অবশ্যই হতে হবে দু’দেশের মধ্যেকার সমস্ত দ্বিপাক্ষিক চুক্তি মেনে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement