BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘ধর্ষককে ভোটের টিকিট কেন?’ প্রশ্ন করতেই মহিলা নেত্রীকে মার কংগ্রেস কর্মীদের

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 11, 2020 4:14 pm|    Updated: October 11, 2020 4:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ধর্ষককে কেন ভোটের টিকিট দেওয়া হবে? প্রশ্ন করতেই দলীয় বৈঠকে প্রহৃত কংগ্রেসের মহিলা নেত্রী। ঘটনাস্থল উত্তরপ্রদেশ। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে দল। একদিকে যখন হাথরাসে নির্যাতিতার জন্য বিচার চেয়ে সরব রাহুল-প্রিয়াঙ্কা, ঠিক তখনও দলের এমন কীর্তিতে তাঁদের বিরুদ্ধে দ্বিচারিতার অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে।

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, উত্তরপ্রদেশের দেওড়িয়ায় কংগ্রেসের সভায় স্থানীয় নেত্রী তারা যাদবকে হেনস্তা করা হয়েছ। সে রাজ্যের উপনির্বাচনে কংগ্রেসের তরফে মুকুন্দ ভাস্কর নামে এক ব্যক্তিকে টিকিট দেওয়া হচ্ছে। তিনি আবার ধর্ষণে অভিযুক্ত বলে খবর। ধর্ষণে অভিযুক্তকে কেন নির্বাচনের টিকিট দেওয়া হচ্ছে, জানতে চাইতেই তারাদেবীর উপর অন্য কর্মীরা চড়াও হয় বলে অভিযোগ করেছেন ওই মহিলা কংগ্রেস কর্মী। সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, কংগ্রেসের পুরুষকর্মীরা তারাদেবীকে ঘিরে ধরে হেনস্তা করতে শুরু করেন। এমনকী, তাঁকে মারধরও করা হয়।

[আরও পড়ুন : প্রেমিককে বেঁধে রেখে কিশোরীকে গণধর্ষণ জামশেদপুরে! অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছে নাবালকও]

এই ঘটনা প্রসঙ্গে তারাদেবী বলেন, “ধর্ষক মুকুন্দ ভাস্করকে কেন উপনির্বাচনের টিকিট দেওয়া হচ্ছে, জানতে চাইতেই অন্যকর্মীরা আমাকে মারধর করে। আমি আপাতত প্রিয়াঙ্কা গান্ধীদির সিদ্ধান্তের অপেক্ষা করছি।” তাঁর কথায়, হাথরাসের নির্যাতিতাকে সুবিচার দিতে কংগ্রেস লড়াই করছে। অন্যদিকে একজন ধর্ষককে ভোটের টিকিট দেওয়া হলে আমাদের দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে।” গোটা ঘটনাটি জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মারও নজরে এসেছে। ভিডিওটি রিটুইট করেছেন তীব্র নিন্দা করেছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেসের মুখপাত্র সুরেন্দ্র রাজপুত জানিয়েছেন, “দলীয় নেতৃত্ব গোটা বিষয়টির দিকে নজর রাখছেন। কড়া পদক্ষেপ করা হবে।”

[আরও পড়ুন : সহজেই মিটবে জমি বিবাদ! এবার আধারের ধাঁচে ‘সম্পত্তি কার্ড’ চালু করল মোদি সরকার]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement