২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মেঙ্গালুরু বিস্ফোরণ: নাশকতায় ISIS যোগ, বাড়িতেই বিস্ফোরক বানাত ধৃত

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 21, 2022 7:08 pm|    Updated: November 21, 2022 7:08 pm

Cops claims Mangaluru Blast Accused Inspired By ISIS | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মেঙ্গালুরু বিস্ফোরণে (Mengaluru Blast) চাঞ্চল্যকর মোড়। নাশকতার মূলচক্রী শারিক ISIS বা আইসিসের আদর্শে অনুপ্রাণিত। একাধিক হ্যান্ডেলারের সঙ্গে কাজ করত সে। এরা সকলে আইসিসের ছায়া সংগঠন আল হিন্দের সদস্য। হ্যান্ডেলারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখত ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমে। সোমবার এমনই জানিয়েছেন কর্ণাটকের পুলিশ কর্তা অলোক কুমার।

পুলিশ কর্তা আরও জানিয়েছেন,শারিকের সঙ্গে একাধিক হ্যান্ডেলার যোগাযোগ ছিল। বর্তমানে শারিক কাজ করছিল হ্যান্ডেলার আরাফত আলির সঙ্গে। সেই আরাফতের বিরুদ্ধে দু’টি নাশকতার অভিযোগ রয়েছে। আল হিন্দ মডিউল মামলায় অভিযুক্ত মুসাভির হুসেনেরও ঘনিষ্ঠ ছিল শারিক। শুধু তাই নয়, আবদুল মাতিন তাহাও ছিল শারিকের হ্যান্ডেলার। আরও ২-৩ জন হ্যান্ডেলারের সঙ্গে যুক্ত ছিল সে। তাদের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি। তবে এরা প্রত্যেকেই আইসিসের ধ্যান ধারনায় বিশ্বাসী। যা দেখে পুলিশের ধারনা, শারিকও ISIS-এর ভাবধারায় অনুপ্রাণিত হয়ে নাশকতার ঘটনা ঘটায়।

[আরও পড়ুন: হাসপাতালের রেফার রোগ, স্বাস্থ্যসাথীর অপব্যবহারে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী, কড়া ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি]

ইতিমধ্যে কর্ণাটক (Karnataka) পুলিশ ৫টি জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছে। উদ্ধার হয়েছে বিস্ফোরক তৈরির মালমশলাও। পুলিশের সন্দেহ, নিজের বাড়িতেই বিস্ফোরক বানাত ধৃত আততায়ী। মেঙ্গালুরুর বিস্ফোরণের আগে দুই সঙ্গীকে নিয়ে ট্রায়াল চালিয়েছিল শারিক। বিস্ফোরক বানিয়ে জঙ্গলের মধ্যে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল তারা। এখনও পর্যন্ত শারিকের দুই সঙ্গীর হদিশ মেলেনি। খোঁজ চলছে তাদের। এদিকে বিস্ফোরণের জেরে শারিকের শরীরের অনেকটাই পুড়ে গিয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। এ প্রসঙ্গে পুলিশ কর্তা অলোক কুমার বলছেন, আপাতত চিকিৎসা করে শারিককে সুস্থ করে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। যাতে ওকে জেরার টেবিল অবধি নিয়ে যাওয়া যায়। শারিককে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই চক্রের হদিশ পেতে চাইছে পুলিশ।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ মেঙ্গালুরুর একটি অটোয় আগুন ধরে যায়। মৃদু বিস্ফোরণের শব্দও শোনা গিয়েছিল বলে খবর। অটোর যাত্রী ও চালককে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। তবে এই ঘটনায় কোনও মৃত্যুর খবর মেলেনি। জখম অটোচালকের দাবি, অটোর এক যাত্রীর ব্যাগে আগুন ধরে যায়। সেখান থেকেই বিস্ফোরণ ঘটে। দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছিল ফরেনসিক টিম। বিস্ফোরণের নমুনা সংগ্রহ করে তারা। জানা গিয়েছে, ওই ব্যাগের ভিতরে ছিল একটি প্রেশার কুকার। যেটি ব্যাটারি ও বিস্ফোরকে ঠাসা ছিল।

[আরও পড়ুন: তলবি সভায় অনুপস্থিত তৃণমূল, নির্দল কাউন্সিলরদের সমর্থনে ঝালদা পুরসভা দখল করল কংগ্রেস]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে