BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মেঙ্গালুরু অটো বিস্ফোরণ: পুলিশকে বিভ্রান্ত করতে অন্যের আধার কার্ড ব্যবহার করেছিল অভিযুক্ত!

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 20, 2022 8:07 pm|    Updated: November 20, 2022 8:07 pm

Mystery sparks over Aadhaar Card which was found at Mangaluru Auto Blast Spot। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মেঙ্গালুরুর (Mangaluru) অটো বিস্ফোরণের (Blast) ঘটনায় ক্রমেই বাড়ছে রহস্য। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, সাধারণ বিস্ফোরণ নয়, এটা নাশকতা। এমতাবস্থায় জঙ্গি হামলার খুঁটিনাটি বুঝে নিতে চাইছে প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে ঘটনাস্থলে উদ্ধার হওয়া আধার কার্ডকে (Aadhaar Card) ঘিরে রহস্য বাড়ছে। কার্ডটির মালিকের দাবি, তিনি বিস্ফোরণের সঙ্গে কোনওভাবেই জড়িত নন। তাঁর আধার কার্ডটি হারিয়ে গিয়েছিল। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, ওই আধার কার্ডে নাম রয়েছে প্রেমরাজ হুতগি নামের এক ব্যক্তির। তিনি কর্ণাটকের বাসিন্দা। চাকরি করেন রেলে। তাঁর দাবি, গত দু’বছরে তিনি দু’বার আধার কার্ড হারিয়েছেন। যদিও ঠিক কোথায় তা হারিয়েছিল তা তাঁর জানা নেই। প্রেমরাজ জানাচ্ছেন, ”সাড়ে ৭টা নাগাদ আমি পুলিশের সাব ইনস্পেক্টরের কাছ থেকে ফোন পাই। তিনি আমার কাছ থেকে জানতে চান কোথায় আমি আধার কার্ডটি হারিয়েছি। আমার অভিভাবকদের সম্পর্কেও জানতে চান। আমি সমস্ত তথ্যই ওঁকে দিয়েছি। আমার ছবিও পাঠিয়েছি।” সেই সঙ্গে ওই ব্যক্তির দাবি, মেঙ্গালুরুতে বিস্ফোরণ সম্পর্কে তাঁকে অবহিত করে পুলিশই।

[আরও পড়ুন: ভারত জোড়ো যাত্রায় মেধা পাটেকর, ভোটমুখী গুজরাটে রাহুলকে নিশানা মোদির]

তাঁর এই বিস্ফোরণের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই বলেই দাবি প্রেমরাজের। তিনি বলছেন, ”আমার সঙ্গে এই ঘটনার কোনও রকম যোগ নেই। পুলিশ জানানোর পরই আমি বিস্ফোরণ সম্পর্কে জেনেছি। ওঁরাই আমায় বলেন, ওখানে আমার আধার কার্ড পাওয়া গিয়েছে। আমার আধার কার্ড আমি হারিয়েছি সেটা সত্যি। কিন্তু মেঙ্গালুরুতে তা হারায়নি।”

স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠছে, তিনি আধার কার্ড হারানোর কথা কি পুলিশকে জানিয়েছিলেন? এপ্রসঙ্গে প্রেমরাজ জানিয়েছেন, তিনি কার্ড হারানোর কোনও অভিযোগ দায়ের করেননি। কেননা তিনি নতুন করে কার্ড প্রিন্ট করে নিয়েছিলেন। তবে তাঁর বক্তব্য, তিনি ভাবতেও পারেননি হারানো কার্ডটি এমনভাবে অপব্যবহার করা হবে।

[আরও পড়ুন: সব লড়াই শেষ, না ফেরার দেশে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা]

উল্লেখ্য, রবিবার সকালে কর্ণাটক (Karnataka) পুলিশের ডিজি জানান, বিস্ফোরণ কোনও দুর্ঘটনা নয়। প্রচুর ক্ষয়ক্ষতির উদ্দেশ্য নিয়ে ঘটানো নাশকতা। এটা নিশ্চিত। তিনি আরও জানান, কেন্দ্রীয় সংস্থার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তদন্ত চলছে। সকলকে শান্ত থাকারও আরজি জানিয়েছেন তিনি। তবে কে বা কারা এই ঘটনা ঘটাল সে সম্পর্কে তিনি কিছু জানাননি।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ মেঙ্গালুরুর একটি অটোয় আগুন ধরে যায়। মৃদু বিস্ফোরণের শব্দও শোনা গিয়েছিল বলে খবর। অটোর যাত্রী ও চালককে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। তবে এই ঘটনায় কোনও মৃত্যুর খবর মেলেনি। জখম অটোচালকের দাবি, অটোর এক যাত্রীর ব্যাগে আগুন ধরে যায়। সেখান থেকেই বিস্ফোরণ ঘটে। দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছিল ফরেনসিক টিম। বিস্ফোরণের নমুনা সংগ্রহ করে তারা। জানা গিয়েছে, ওই ব্যাগের ভিতরে ছিল একটি প্রেশার কুকার। যেটি ব্যাটারি ও বিস্ফোরকে ঠাসা ছিল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে