১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আলোয়ারে গণপিটুনির ঘটনায় সাসপেন্ড পুলিশ অফিসার, শাস্তির মুখে আরও ৩

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 24, 2018 11:54 am|    Updated: July 24, 2018 11:54 am

Cops face hit after cow vigilantes lynch man in Alwar

আকবর খান

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আলোয়ারের গণপিটুনির ঘটনায় সাসপেন্ড হলেন অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর। আরও তিন কনস্টেবলকে পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়েছে। রাকবর ওরফে আকবর খানকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে দেরি করার কারণে শাস্তির মুখে পড়তে হয় পুলিশকর্মীদের। সরকারি তরফে এই খবর জানানো হয়েছে।

সিনিয়র পুলিশ অফিসাররা জানিয়েছেন, ওই পুলিশকর্মীরা সঠিক কাজ করেননি। সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়নি। সেই কারণে শাস্তির মুখে পড়েছে তাঁরা। একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়। ভিডিওটি সাব-ইন্সপেক্টর মোহন সিংয়ের বিরুদ্ধে প্রমাণ দিচ্ছে। তিনি রামগড় থানায় পোস্টেড। খবর, এই পুলিশ অফিসার তাঁর ভুলের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, গণপিটুনির ঘটনার পর রাকবরকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে তিন ঘ্ণ্টা দেরি করে পুলিশ। এই কথা স্বীকারও করে নিয়েছেন মোহন সিং। তিনি বলেছেন, “আমি ভুল করে ফেলেছি। শাস্তি দাও বা ক্ষমা করে দাও। এই কথা সত্যি ও স্পষ্ট।”

ঘুমের ওষুধ খাইয়ে পুরুষ ভক্তদের সঙ্গে সঙ্গম, গ্রেপ্তার স্বঘোষিত ধর্মগুরু ]

রাজস্থান পুলিশের একটি কমিটি এই ঘটনার তদন্ত করে। তাতে জানা যায়, ২৮ বছরের আকবর খানকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে দেরি করেছিল তারা। সেই কারণে ওই অ্যাসিট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টরকে সাসপেন্ড করা হয়েছে ও ৩ জনকে পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়েছে। আলোয়ারে একটি সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানিয়েছেন ডিজিপি এনআরকে রেড্ডি (আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক)। তিনি বলেছেন, পরিস্থিতির বিচারে সিদ্ধান্ত নিতে ভুল হয়েছিল। প্রাথমিক তদন্তে একথা প্রকাশ পেয়েছে।

পুলিশের চার জনের ওই কমিটিতে ডিজিপি এনআরকে রেড্ডি ছাড়াও ছিলেন অ্যাডিশনাল ডিজিপি (সিআইডি ক্রাইম ব্রাঞ্চ) পিকে সিং, ইন্সপেক্টর জেনারেল (জয়পুর রেঞ্জ), রাজ্যের নোডাল অফিসার মহেন্দ্র সিং চৌধুরি ও রাজ্যের ডিজিপি ওপি গালহোত্রা।

আলোয়ারের পুলিশ সুপার রাজেন্দ্র সিং বলেছেন, “স্থানীয় পুলিশকর্মীদের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ এসেছে। অভিযোগ অনুসারে তাঁরা নাকি আকবর খানকে পেটানোর সঙ্গে যুক্ত ছিল, তাঁকে হাসপাতালেও দেরিতে নিয়ে গিয়েছিল। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি।”

জেলে সহবন্দিদের আক্রমণ, মরণাপন্ন ২৬/১১ হামলার অন্যতম চক্রী হেডলি ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে