২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ভ্যাকসিনের জন্য ৮০ হাজার কোটি টাকা আছে তো? সেরাম কর্তার প্রশ্নের জবাব দিল কেন্দ্র

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 30, 2020 10:32 am|    Updated: September 30, 2020 10:32 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন (Corona Vaccine) বিতরণের ক্ষমতা নিয়ে কার্যত কেন্দ্রকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন ভারতে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের প্রস্তুতকারী সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউটের শীর্ষকর্তা আদর পুনাওয়ালা। কেন্দ্রের কাছে তাঁর সরাসরি প্রশ্ন ছিল, প্রত্যেক ভারতবাসীকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য যে ৮০ হাজার কোটি টাকা প্রয়োজন। আগামী এক বছরের মধ্যে কেন্দ্র সেটা জোগাড় করতে পারবে তো? এবার আদর পুনাওয়ালার (Adar Poonawalla) সেই প্রশ্নের জবাব দিল স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তাঁদের দাবি, সেরাম কর্তার হিসেব ভুল। দেশব্যাপী করোনার টিকা পৌঁছে দিতে অত টাকা খরচ হবে না।

দিন চারেক আগে আদর পুনাওয়ালা রীতিমতো বিস্ফোরক একটি টুইট করেন। যাতে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রককে উদ্দেশ্য করে বলেন,”কেন্দ্র সরকারের কাছে ৮০ হাজার কোটি টাকা আছে তো? কারণ, সকল দেশবাসীর জন্য করোনা ভ্যাকসিন কিনতে ও পৌঁছে দিতে আগামী এক বছরের মধ্যে এই অঙ্কের টাকাই প্রয়োজন। আমি এই প্রশ্নটা করছি, কারণ ভারতের ও বিদেশের ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারকদের নির্দিষ্ট গাইডলাইন দিতে হবে। ভারতের জন্য কত টিকা প্রয়োজন, কীভাবে তা সরবরাহ হবে, তা নিয়ে সুনির্দিষ্ট ভাবনাচিন্তা দরকার”

[আরও পড়ুন: বাবরি ধ্বংস মামলা: রায়দানের আগে জেনে নিন এই মামলার খুঁটিনাটি এবং ইতিহাস]

মঙ্গলবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের (Union Health Ministry) সাংবাদিক বৈঠকে এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ বলেন, “আমরা ওই ব্যক্তির সঙ্গে একমত (খরচের বিষয়ে) নই। আমাদের মনে হয় না ৮০ হাজার কোটির প্রয়োজন পড়বে। সরকার ভ্যাকসিন বিতরণের জন্য একটা বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরি করেছে। তাঁরা গোটা পাঁচেক বৈঠকও করেছে। সেইসব বৈঠকে ভ্যাকসিন বিতরণের খরচ, কাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে, সেসব ভাবনা চিন্তা করা হয়েছে। আমরাও আমাদের মতো একটা হিসেব করেছি। আর আমাদের হিসেবে যে টাকাটা প্রয়োজন, সেটা সরকারের কাছে আছে।” এদিকে আরএসএসের শাখা সংগঠন স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ আবার পুনাওয়ালাকে একপ্রকার হুমকি দিয়ে রেখেছেন। তিনি বলছেন দেশের প্রয়োজনে আদর পুনাওয়ালাকে বিনামূল্যে হলেও ভ্যাকসিন তৈরি করতে হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement