BREAKING NEWS

৭  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দিল্লিতেই রয়েছেন মৌলানা সাদ, কোয়ারেন্টাইন পর্ব শেষ হলে জেরা করবে পুলিশ

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 8, 2020 3:08 pm|    Updated: April 8, 2020 3:08 pm

COVID-19: Nizamuddin Markaz chief Maulana Saad traced in Delhi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে নিজামুদ্দিন মারকাজের প্রধান বিতর্কিত ধর্মগুরু মৌলানা সাদের খোঁজ পেল দিল্লি পুলিশ। দিল্লির জাকির নগর এলাকায় তাঁর হদিশ মিলেছে। তাঁকে জেরা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ। তবে তাঁর কোয়ারেন্টাইন পর্ব শেষ হলেই জেরা করা হবে বলে জানা গিয়েছে পুলিশ সূত্রে।

মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে করোনা সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশিকা অমান্য করার অভিযোগ উঠেছিল। সাবধান করা সত্ত্বেও তিনি নিজামুদ্দিন মারকাজে তবলিঘি জামাতের সমাবেশ চালিয়ে যান বলে অভিযোগ। মার্চের মাঝামাঝি সময়ে ওই ধর্মীয় সমাবেশ ঘিরে বিতর্ক দেখা দেয়। মৌলানা সাদ-সহ ছয়জনের বিরুদ্ধে সরকারি ফরমান অমান্য করার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘লুকিয়ে থাকা তবলিঘি জামাতিদের গুলি করা ভুল নয়’, মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের]

এর আগে দিল্লি পুলিশকে প্রতুত্তরে সাদ জানিয়েছিলেন, তিনি গৃহ পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। তবে তিনি কোথায় রয়েছেন তা নিয়ে ধন্দে ছিল দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। তবে তাঁর হদিশ পেয়েছে পুলিশ। এর আগে দিল্লি পুলিশ তাঁকে দুবার নোটিস পাঠিয়ে তলব করে। কিন্তু দেখা করেননি সাদ। আর করোনা আতঙ্কে তাঁর কাছেও যেতে পারেনি পুলিশ আধিকারিকরা। কারণ এর আগে, নিজামুদ্দিন মারকাজে তদন্তের কাজে যাওয়ার জন্য ১২ জনেরও বেশি ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ও পুলিশকর্মীকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৌলানা সাদকে জেরার পরই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হবে কি না সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এর আগে তাঁকে নোটিস পাঠিয়ে মোট ২৬টি প্রশ্নের উত্তর চেয়েছিল দিল্লি পুলিশ। কিন্তু সেইসময় গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকার কারণে বেশিরভাগ প্রশ্নেরই উত্তর দেননি সাদ। এদিকে, তদন্তকারী আধিকারিকরা মারকাজের অর্থ জোগানের উৎস খতিয়ে দেখছেন বলে সূত্রের খবর। জানা গিয়েছে, উপসাগরীয় দেশগুলি থেকে মারকাজে অর্থের জোগান হয়। সেগুলি তদন্ত হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: কোয়ারেন্টাইন সেন্টার নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, দেশদ্রোহিতার দায়ে গ্রেপ্তার অসমের বিধায়ক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে