৫ ভাদ্র  ১৪২৬  শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৫ ভাদ্র  ১৪২৬  শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র ১০০ টাকা দিয়ে জামা কিনেছিলেন এক যুবতী। এর জেরে তাঁর দুটি চোখ উপড়ে নিয়ে মারধর করল ছোট ভাই। শুধু তাই নয়, মারধরের পর তাঁকে বাড়িতে আটকেও রাখে। পাশবিক এই ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির দ্বারকা এলাকায়। মঙ্গলবার অচৈতন্য অবস্থায় ওই যুবতীকে উদ্ধার করে সফদরজং হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। তাঁর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ডাক্তাররা।

[আরও পড়ুন: MAN VS WILD: মোদির অনুষ্ঠান থেকে অর্জিত টাকা দেশের কোন কাজে লাগবে জানেন?]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েক বছর আগে ওই যুবতীর পরিবার কাজের সূত্রে বিহার থেকে দিল্লিতে এসেছিল। সম্প্রতি বিহারে কিছু কাজ থাকায় ২০ বছরের মেয়ে ও ১৭ বছরের ছেলেকে দিল্লিতে রেখে সেখানে গিয়েছিলেন পরিবারের সদস্যরা। এর মাঝেই ১০০ টাকা দিয়ে একটি জামা কেনেন ওই যুবতী। বাড়িতে ফিরে ভাইকে বিষয়টি জানালে সে রেগে যায়। আর তারপরই অকথ্য অত্যাচার চালাতে থাকে দিদির উপর। বেধড়ক মারধর করার পর ছুরি দিয়ে তাঁর চোখও উপড়ে নেয়। অসহ্য যন্ত্রণায় কাতর হয়ে যুবতীটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। তারপরও চিকিৎসা না করিয়ে তাঁকে একটি ঘরে আটকে রাখে অভিযুক্ত।

মঙ্গলবার ওই এলাকায় পরিদর্শনে গিয়েছিলেন দিল্লি মহিলা কমিশনের সদস্যরা। বাড়ি বাড়ি ঘুরে মহিলাদের খবর নিচ্ছিলেন। সেসময় আচমকা একটি মেয়ের কান্নার আওয়াজ শুনতে পান। খোঁজখবর করতেই জানতে পারেন স্থানীয় একটি ছেলে প্রায়দিনই নিজের দিদি ও বোনেদের মারধর করে। এরপরই অভিযুক্তের বাড়িতে গিয়ে হাজির হন কমিশনের সদস্যরা। প্রথমে তাঁদের বাড়িতে ঢুকতে দিতে চাইছিল না অভিযুক্ত কিশোর। মারধর করার হুমকি দিচ্ছিল। কিন্তু, সেই হুমকিকে অগ্রাহ্য করে জোর করে বাড়ির মধ্যে ঢুকে পড়েন তাঁরা। এরপরই দেখতে পান বাড়ির মেঝেতে শুয়ে আছেন ওই যুবতী। আর তাঁর চোখ ও মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। বিষয়টি দেখতে পেয়েই তাঁকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। অভিযুক্ত কিশোরের নামে অভিযোগ জানানো হয় পুলিশের কাছে। পাশাপাশি খবর দেওয়া হয় বিহারে থাকা মেয়েটির পরিবারের সদস্যদের। হাসপাতালে গিয়ে মেয়েটিকে দেখে আসেন দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল। পরে আদালতের কাছে মেয়েটির চিকিৎসা খরচ এবং ক্ষতিপূরণের আবেদনও জানানো হয় মহিলা কমিশনের তরফে।

[আরও পড়ুন: দিল্লি পুলিশের নোটিসে ১৫ আগস্টকে প্রজাতন্ত্র দিবস হিসেবে উল্লেখ! দায়ের জনস্বার্থ মামলা]

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মহিলা কমিশনের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত নাবালক হওয়ায় এখনও তাকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। মেয়েটি কিছুটা সুস্থ হলে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং