১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দোকানে আমিষ খাবার প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা, বিতর্কে এই পুরনিগম

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 28, 2017 11:06 am|    Updated: December 28, 2017 11:06 am

Delhi civic body bans display of non-veg foods outside eateries

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রান্না করা হোক কিংবা কাঁচা, দোকানের বাইরে তাকে মাংস বা কোনও আমিষ খাবার সাজিয়ে রাখা যাবে না। দক্ষিণ দিল্লিতে খাবার দোকানগুলিকে এমনই নির্দেশ দিল বিজেপি পরিচালিত পুরনিগম। পুরনিগমের যুক্তি, খাবার দোকানে বাইরে আমিষ খাবার রাখলে পরিবেশ দূষণ তো হয়ই, নিরামিষাশী মানুষরাও অস্বস্তি বোধ করেন। তাঁদের ভাবাবেগে আঘাত লাগে। দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগমের এই সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। যদিও এই ইস্যুতে সাবধানী আপ। দলের মুখপাত্র সৌরভ ভরদ্বাজ বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হওয়া প্রয়োজন।

[বাধ্য হয়ে থাকুন, লালুকে নোটিস জেলে]

রাজধানীর খাদ্যরসিক প্রধান গন্তব্য দক্ষিণ দিল্লি। সেখানকার হাউস খান, নিউ ফ্রেন্ডস কলোনি, সফদরজং গ্রিন পার্ক, অমর কলোনি পার্কে খাবার দোকানগুলিতে ভিড় করে বহু মানুষ। ক্রেতাদের আকর্ষণ করতে দোকানের বাইরে তাকে সাজানো থাকে শিক কাবাব-সহ বহু সুস্বাদু আমিষ পদ। কিন্তু, সেই চেনা ছবিটা এবার বদলাতে চলেছে। সৌজন্যে বিজেপি পরিচালিত দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগম। পুরনিগমের নির্দেশ, দোকানের বাইরে রান্না করা বা কাঁচা কোনও আমিষ খাবার রাখা যাবে না। পুরনিগম সূত্রে খবর, হেল্থ কমিটির বৈঠকে দোকানে বাইরে আমিষ খাবার রাখা বন্ধ করার দাবি জানিয়ে একটি বেসরকারি বিল পেশ করেছিলেন একজন কাউন্সিলর। হেল্প কমিটি বিলটি পুরনিগমে পাঠিয়ে দেয়। সম্প্রতি পুর-অধিবেশনে বিলটি পাশ হয়েছে। দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগমে বিজেপির দলনেতা শিখা রাই জানিয়েছেন, অধিবেশনে পাশ হলেও এখনই বিলটি আইনে পরিণত হবে না। যেহেতু এটি একটি বেসরকারি বিল। তাই পুর আইন মেনে বিলটি পুর কমিশনারের কাছে পাঠানো হবে। তিনিই বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। তবে ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দিল্লির খাবার দোকানগুলির বাইরে মাংস বা অন্য কোনও আমিষ না রাখার নির্দেশ জারি করেছে পুরনিগম। রান্না করা তো নয়ই, দোকানের বাইরে কাঁচা আমিষ পদও রাখা যাবে না।

[ফের সাফল্য, দক্ষিণ মেরু স্পর্শ করে নজির গড়লেন সত্যরূপ]

এটা ঠিক, যে দিল্লিতে নিরামিষাশী মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। কিন্তু, তা বলে দোকানে বাইরে আমিষ খাবার রাখায় নিষেধাজ্ঞা জারি করার কারণটা কী? দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগমে বিজেপি দলনেতা শিখা রাইয়ের বক্তব্য, দোকানের বাইরে আমিষ খাবার রাখলে পরিবেশের ক্ষতি হয়। রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময়ে আমিষ খাবার দেখে অস্বস্তি বোধ করেন নিরামিষাশী মানুষরাও। তবে দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগমের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতার করেছে কংগ্রেস। দলের কাউন্সিলর অভিষেক দত্তের সাফ কথা, ‘পুরনিগম সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে স্বেচ্ছাচারিতা চালাতে পারে না বিজেপি। যদি শহরকে পরিচ্ছন্ন রাথতে হয়, তাহলে যাঁরা নিয়ম না মেনে ব্যবসা করছে, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। সবার উপর নিষেধাজ্ঞা চাপানোর কোনও প্রয়োজ নেই।’ কিন্তু, বিজেপি পরিচালিত পুরনিগমের সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে সুর চড়ায়নি দিল্লির শাসকদল আপ। বরং, তারা কিছুটা সাবধানী। আপের মুখপাত্র সৌরভ ভরদ্বাজ শুধু বলেছেন, বিষয়টি আলোচনা হওয়া দরকার।

[কংগ্রেসের দায়িত্বে রাহুল, গোয়ায় ছুটি কাটাতে গেলেন সোনিয়া]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে