BREAKING NEWS

২৪ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ৮ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে দিল্লি হাই কোর্টের ভর্ৎসনার মুখে কেন্দ্র

Published by: Arupkanti Bera |    Posted: April 20, 2021 9:06 pm|    Updated: April 20, 2021 9:08 pm

An Images

প্রতীকী চিত্র।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল: যেখানে অক্সিজেন (Oxygen) খুব প্রয়োজন সেখানে যদি তা না পাঠান, তবে আপনাদের “হাতে রক্তের দাগ লেগে থাকবে।” দিল্লি সরকারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকারকে সরাসরি এই ভাষায় ভর্ৎসনা করল দিল্লি হাই কোর্ট (Delhi High Court)। কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal) সরকারের অভিযোগ ছিল, দিল্লিতে অক্সিজেনের প্রয়োজন থাকলেও সেখানে সরবরাহ করা হচ্ছে না। অথচ সরবরাহ করা হচ্ছে অন্য একটি রাজ্যে। নাম না করলেও উত্তরপ্রদেশকে ইঙ্গিত করতে চাওয়া হয়েছে এখানে। সে প্রসঙ্গেই দিল্লি হাই কোর্টের সমালোচনার মুখে পড়ে কেন্দ্রীয় সরকার।

[আরও পড়ুন: করোনা টিকার হাহাকারের মধ্যেই দুঃসংবাদ, নষ্ট হয়েছে ২৩ শতাংশ ডোজ]

আজ মঙ্গলবার শুনানির সময় দিল্লি হাই কোর্ট প্রশ্ন তোলে, শিল্প ক্ষেত্রের বদলে কি হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহ করা যায় না? উত্তরে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল থেকে শিল্প ক্ষেত্রে অক্সিজেন সরবরাহ বন্ধ রেখে তা হাসপাতালে দেওয়া হবে। তখন দিল্লি হাইকোর্ট পালটা প্রশ্ন তোলে, “কেন আজ থেকে নয়? আপনারা কি রোগীদের বলবেন ২২ এপ্রিল পর্যন্ত অক্সিজেনের জন্য অপেক্ষা করুন? শিল্প অপেক্ষা করতে পারে রোগীরা নন।”

বিচারপতি বিপিন সাঙ্ঘি এবং রেখা পাল্লির ডিভিশন বেঞ্চে এই শুনানি হয়। বিচারপতিরা বলেন, শোনা যাচ্ছে, দিল্লির গঙ্গা রাম হাসপাতালের চিকিৎসকদের চাপ দেওয়া হচ্ছে যাতে রোগীদের কম করে অক্সিজেন দেওয়া হয়। কারণ অক্সিজেনের সরবরাহ কম রয়েছে।

[আরও পড়ুন: জুলাই থেকে ২৮ শতাংশ ডিএ পেতে পারেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা]

যদিও কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে দাবি করা হয় রোগীর সংখ্যার বিচারে প্রয়োজন মতো অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। তবে আজ সন্ধ্যাবেলায় দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া দাবি করেছেন, দিল্লির হাসপাতালগুলিতে মাত্র ৮ থেকে ১০ ঘণ্টার অক্সিজেন রয়েছে। তার আগেই যদি পর্যাপ্ত অক্সিজেন না পৌঁছয় তবে আরও মৃত্যু বাড়বে।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement