BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মিছিলে ফের অশান্তি, পুলিশের লাঠির ঘায়ে জখম ১০

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 11, 2020 7:52 am|    Updated: February 11, 2020 9:00 am

Delhi police stoped rally of Jamia Milia University's students.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মিছিল করে সংসদ ভবনের দিকে যেতে চেয়েছিলেন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদীরা। সোমবার দুপুরে ওই মিছিলে ছিলেন জামিলা মিলিয়া বিশ্ববিদ‌্যালয়ের পড়ুয়া, প্রাক্তনী ও সন্নিহিত এলাকার স্থানীয় মানুষ। পুলিশ বাধা দিলে তাঁদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি বেধে যায়। দু’পক্ষই ছিল অনড়। শেষ পর্যন্ত কয়েকজন প্রতিবাদীকে আটক করে দিল্লি পুলিশ। শুধু তাই নয়, গোপনাঙ্গে গুরুতর আঘাতের জেরে জামিয়ার দশ পড়ুয়াকে প্রথমে বিশ্ববিদ‌্যালয়ের হেল্‌থ সেন্টারে ভর্তি করতে হয়। কয়েকজনের আঘাত মারাত্মক হওয়ায় তাঁদের আল শাইফা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেসিডেন্ট চিকিৎসকরা। তাঁদের মধ্যে একজন আইসিইউ-তে রয়েছেন। বুকে, গোপনাঙ্গে লাঠির ঘায়ে কয়েকজনের ‘অভ‌্যন্তরীণ আঘাত’ হয়েছে বলেও মনে করছেন চিকিৎসকরা। এই ঘটনায় অভিযোগের তির দিল্লি পুলিশের দিকে।
হেল্‌থ সেন্টারে ভর্তি এক ছাত্রী জানান, “প্রথমে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে বুট দিয়ে গোপনাঙ্গে আঘাত করা হয়। পরে এক মহিলা পুলিশ আমার বোরখা টেনে খুলে দেন। লাঠি দিয়ে গোপনাঙ্গে আঘাত করেন।” আর এক ছাত্রীর দাবি, ক‌্যামেরা থেকে আড়াল করতে কোমরের নিচের দিক লক্ষ‌্য করে লাঠি চালানো হয়। তাঁর কনুই ও তলপেটে আঘাত লেগেছে। ছাত্রীদের বাঁচাতে গিয়ে এক ছাত্র পুলিশের লাঠি-বুটের আঘাতে দু’বার অজ্ঞান হয়ে যান বলেও অভিযোগ। ঘটনার জেরে তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়।

[আরও পড়ুন : দিল্লিতে শেষবেলায় ভোট পড়েছে ৩০ লক্ষ! এঁরাই কি ভরসা বিজেপির?]

এদিন জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ‌্যালয়ের প্রবেশ দ্বার থেকে মিছিল শুরু হয়। প্রতিবাদীদের মুখে ছিল ‘কাগজ নেহি দেখায়েঙ্গে’, ‘হল্লা বোল’ স্লোগান। কিন্তু বেশি দূর এগোতে পারেননি তাঁরা। মাত্র দু’কিলোমিটার এগোতেই পুলিশ পথ আটকায়। সংসদ ভবন পর্যন্ত মিছিলের অনুমতি নেই বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। বাধা ভেঙে প্রতিবাদকারীরা এগিয়ে যেতে চাইলে শেষ ব‌্যারিকেডে দু’পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়ে যায়। কয়েকজন লাফিয়ে ব‌্যারিকেড টপকে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

[আরও পড়ুন : RSS নেতাদের খুনের ছক কষছে জঙ্গিরা! চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের]

অন‌্যদিকে, দাঙ্গারোধী পোশাক পরা পুলিশদের দেখা যায় তাঁদের বাধা দিতে। এরপর কয়েকজন প্রতিবাদীকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। উল্লেখ‌্য, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে রাজধানীতে প্রায় দু’মাসের কাছাকাছি মূল প্রতিবাদ চলছে শাহিনবাগে। কিন্তু তারই সঙ্গে জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ‌্যালয়, জাফরাবাদ-সহ নানা এলাকায় বিক্ষোভ-মিছিল চলছে পুরোদমে। ডিসেম্বরে সংসদে ওই আইন পাস হওয়ার পর থেকেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে