২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভোটের সময় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে ‘না’, গুজরাট নির্বাচনে আধিকারিকদের কড়া নির্দেশ কমিশনের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 20, 2022 7:40 pm|    Updated: November 20, 2022 7:59 pm

Election Commission issues strict order on using social media during poll time | Sangbad Pratidin

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত, নয়াদিল্লি: গুজরাট নির্বাচনে (Gujarat Election) দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিসক্রিয় বা অত্যুৎসাহী সরকারি আধিকারিকদের নিয়ন্ত্রণে কড়া মনোভাব কমিশনের। নির্বাচন সংক্রান্ত ছাড়াও ব্যক্তিগত কোনও মতামত বা ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) দেওয়া যাবে না বলে নির্দেশ নির্বাচন কমিশন। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কমিশনের নির্দেশ অমান্য করে এক আমলা কমিশনের কাজে ব্যবহৃত গাড়ির সঙ্গে নিজের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়ে শাস্তির মুখে পড়েছেন। কমিশনের ব্যাখ্যা, অনেক ক্ষেত্রেই নির্বাচনের কাজে যুক্ত আধিকারিকদের কাজকর্ম ভোটারদের প্রভাবিত করতে পারে, তাই এমন সিদ্ধান্ত।

নির্বাচন প্রক্রিয়া চলাকালীন সোশ্যাল মিডিয়ার উপর কড়া নজর রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন (Election Commission)। বিশেষ করে রাজনৈতিক পোস্টের উপর। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হতে পারে বা আইনশৃঙ্খলায় প্রভাব পড়তে পারে, এমন কোনও পোস্ট হলেও তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। শুধু রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তি নয়। নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক ও কর্মীদেরকেও সতর্ক থাকতে হবে বলে জানিয়েছে কমিশন।

[আরও পড়ুন: ভারত জোড়ো যাত্রায় মেধা পাটেকর, ভোটমুখী গুজরাটে রাহুলকে নিশানা মোদির]

কমিশনের নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, যতদিন না ভোটপ্রক্রিয়া সমাপ্ত হচ্ছে না ততদিন কমিশনের কাজের সঙ্গে যুক্ত আধিকারিক ও কর্মীদের সোশ্যাল মিডিয়া এড়িয়ে চলতে হবে। কমিশনের অনুমতি ছাড়া নির্বাচন সংক্রান্ত কোনও পোস্ট (Post) করা যাবে না। কর্তব্যরত অবস্থায় ব্যক্তিগত ছবি বা মতামতও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ানো থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি রাজ্যের এক পর্যবেক্ষক কমিশনের বোর্ড লাগান একটি গাড়ি করে নির্বাচনের কাজে যাওয়ার সময় সেই ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেন। বিষয়টি কমিশনের নজরে আসতেই তাঁকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: সব লড়াই শেষ, না ফেরার দেশে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা]

এদিকে, রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকেই প্রতিদিনই হিংসাত্মক ঘটনার খবর আসছে। যা আগে কখনও কোনও ভোটে হয়নি। প্রায়ই বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে আপ ও কংগ্রেসের সংঘর্ষ হচ্ছে বলে খবর আসছে। তাই উত্তজনাপ্রবণ বুথের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে বলে কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে আহমেদাবাদের প্রায় সাড়ে চার হাজার বুথের মধ্যে ৩৪ শতাংকে অতি উত্তেজনাপ্রবণ বলে ঘোষণা করেছে কমিশন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে