২  ভাদ্র  ১৪২৯  শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দেশদ্রোহিতার মামলায় সারাজীবন জেলে পচতে হতে পারে, আশঙ্কায় অভিযুক্তরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 21, 2017 1:55 pm|    Updated: October 7, 2019 2:04 pm

Enemy within! 15 in MP charged with sedition for raising pro-Pakistan slogan

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের জয়ের পর মধ্যপ্রদেশে বিজয়োল্লাসে শামিল হয় বুরহানপুর জেলার মুসলিম অধ্যুষিত মোহাদ গ্রামের সদস্যরা। স্থানীয়দের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে এই ঘটনায় ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের মধ্যে ২ জন নাবালকও রয়েছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ধৃতদের পালটা দাবি, মুসলিম হওয়ায় ও বিজেপিকে ভোট না দেওয়ায় তাদের মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হচ্ছে।

জেলা পুলিশ সুপার অবশ্য এই অভিযোগ উড়িয়ে বলেছেন, “স্থানীয়দের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়েই অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।” গত রবিবার ম্যাচ চলাকালীন অভিযুক্তরা পাকিস্তানের সমর্থনে স্লোগান দিচ্ছিল, অশ্লীল ভাষায় ভারতের বিরুদ্ধে গালিগালাজ করছিল বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন সুভাষ লক্ষ্মণ কোলি। অভিযোগ পেয়েই তৎপর হয় পুলিশ। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতদের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।

[বৃত্ত পূর্ণ করে ‘এয়ার ইন্ডিয়া’ ফিরে যেতে পারে টাটাদের হাতেই]

ধৃতদের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, পুলিশ অযথাই তাদের বাড়ির পুরুষদের হয়রান করছে। পাকিস্তানের জয়ে তাদের মধ্যে কেউ আনন্দিত হয়নি। বিজেপির জন্য ভোট না দেওয়ায় ও মুসলিম বলে পুলিশ বিনা কারণে তাদের গ্রেপ্তার করেছে বলে দাবি রফিক ইমাম নামের এক ব্যক্তির। তাঁর ২৫ বছরের পুত্রকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁর আরও অভিযোগ, হিন্দু ও মুসলিমদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক অশান্তি বাধাতেই বিজেপি নেতারা আড়াল থেকে কলকাঠি নাড়ছেন। যদিও বুরহানপুরের এসপি আরআরএস পরিহার এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন।

মুসলিম গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ধৃতদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করেছে পুলিশ। এই মামলায় ধৃতদের সারাজীবন জেলে কাটাতে হতে পারে। এই আতঙ্কেই এখন ঘুম ছুটেছে অভিযুক্তদের পরিবারের সদস্যদের। স্থানীয় মুসলিমদের একটি সংগঠনের সচিব মাসুদ অহমেদ খান বলছেন, “বছরের পর বছর এই বুরহানপুরে মুসলিমদের দমিয়ে রাখা হচ্ছে। এভাবে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করলে গোটা জাতির কাছে ভুল বার্তা পৌঁছবে।” এই ঘটনা অবশ্য নজিরবিহীন নয়। ২০১৬-য় জম্মু ও কাশ্মীরের ভুল মানচিত্র পাঠ্যবইতে অন্তর্ভুক্ত করায় একটি বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেও দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করেছিল পুলিশ।

[রামনাথ কোবিন্দ রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী, প্রথম কে আঁচ করেছিলেন জানেন?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে