২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৮ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Paytm-এর মাধ্যমে কোটি কোটি টাকার লেনদেন, দিল্লিতে বড়সড় চিনা বেটিং চক্রের হদিশ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 30, 2020 8:56 am|    Updated: August 30, 2020 8:56 am

Enforcement Directorate frozen 46.96 crore in four bank accounts in Delhi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাওয়ালা চক্রের পর এবার বড়সড় চিনা বেটিং চক্র। রাজধানী দিল্লির বুকে ফের বড়সড় আর্থিক কেলেঙ্কারি চিনাদের। আর এবারে টাকার লেনদেন হত আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত অ্যাপ Paytm-এর মাধ্যমে। তদন্তে নেমে চক্ষু চড়কগাছ এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (Enforcement Directorate)।

ইডির কাছে খবর ছিল দিল্লি, মুম্বই এবং পুণের কয়েকটি সংস্থা চিনা অ্যাপের মাধ্যমে বড়সড় বেটিং চক্র চালাচ্ছে। সেই খবরের সূত্র ধরে শনিবার দিল্লি, মুম্বই এবং পুণের ১৫টি জায়গায় তল্লাসি চালায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। তাতেই চোখ কপালে ওঠে ইডি আধিকারিকদের। জানা যায়, কিছু চিনা নাগরিক ভারতের কিছু অসৎ চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টের সাহায্যে ভুয়ো সংস্থা তৈরি করেছিল। ওই সংস্থাগুলি প্রথমে ভুয়ো ভারতীয় ডিরেক্টরের নামে খোলা হয়। পরে চিন থেকে এসে সেগুলির দখল নেয় চিনা নাগরিকরা। এবং সেই সংস্থাগুলি থেকে চিনা অ্যাপের মাধ্যমে চালানো হয় বেটিং চক্র। যাতে চলত কোটি কোটি টাকার লেনদেন।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে সন্ত্রাসদমন অভিযানে নিকেশ আরও ৩ জঙ্গি, শহিদ এক পুলিশকর্মী]

ইডি আধিকারিকরা এই ধরনের বেশ কয়েকটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সন্ধান পেয়েছেন। মূলত HSBC ব্যাংকে এই অ্যাকাউন্টগুলি ছিল। ইডি সূত্রের খবর, এই ধরনের একটি অ্যাকাউন্টে ১ হাজার ২৬৮ কোটি টাকার লেনদেনের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এর বেশিরভাগটাই হয়েছে Paytm-এর মাধ্যমে। Paytm-এর মাধ্যমেই ৩০০ কোটি টাকা আয় এবং ৬০০ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে ওই অ্যাকাউন্টটিতে। এই ধরনের আরও অনেক ছোটবড় অ্যাকাউন্টের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। গতকাল ইডি আধিকারিকরা চারটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৪৭ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে। তিনজনের বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন ভারতীয় এবং একজন চিনা নাগরিক। ইডি সূত্রের খবর, চিনারা স্থানীয়দের HSBC ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খোলার কাজে লাগাত এবং অনলাইন ওয়ালেটেও এদের অ্যাকাউন্টই ব্যবহার করত। অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেলে তার দখল চলে যেত পুরোপুরি চিনাদের হাতে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে