১৪  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চোদ্দটি সাফাইকর্মী পদে আবেদন ৪,৬০০ জনের, রয়েছেন ইঞ্জিনিয়াররাও

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 6, 2019 5:06 pm|    Updated: February 6, 2019 5:06 pm

Engineers apply for sweeper's pos

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেকারত্ব ভারতের জ্বলন্ত সমস্যা। সরকারি চাকরি পাওয়া সত্যিই দুষ্কর। সামান্য ডোমের চাকরির জন্যও পিএইচডি হোল্ডারদের লাইন পড়ে যায়। তাই সরকারি চাকরি পাওয়ার জন্য নৈতিকতার দায়বদ্ধতা ঝেড়ে ফেলছেন অনেকেই। ভারতের বেকারত্বের দৈন্যদশা আরও একবার প্রকাশ্যে এল তামিলনাড়ুতে একটি সরকারি চাকরির বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে। মোট ১৪টি সাফাইকর্মী পদের জন্য বিজ্ঞাপন দিয়েছিল তামিলনাড়ু সরকার। এদের মধ্যে ১০ জনের কাজ পরিচ্ছন্নতায় নজর দেওয়া, বাকি ৪ জন শৌচাগার কর্মী। এই পদের জন্য কতজন আবেদন করেছেন, সেই তালিকাটা দেখলে চোখ কপালে ওঠার উপক্রম।

[রাজীব কুমারকে জেরার প্রস্তুতি, প্রশ্নপত্র তৈরি সিবিআইয়ের]

গত ২৬ সেপ্টেম্বর তামিলনাড়ুর সচিবালয়ের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। এই ১৪টি পদের জন্য কোনও ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতার বিধিনিষেধ ছিল না। শুধুমাত্র শারীরিকভাবে সক্ষম হলেই আবেদন করা যেত। বেতনও তেমন বেশি ছিল না। এই ১৪টি পদের জন্য মোট ৪ হাজার ৬০৭টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। আবেদনকারীদের তালিকায় রয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার, এম টেক, বি টেক, এমবিএ, এম এ, এমএসসি গ্রাজুয়েট ডিগ্রিধারীরা। বেশ কিছু ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররাও আবেদন করেছেন এই ১৪টি পদের জন্য। নেহাতই সরকারি চাকরির মোহ, নাকি আদৌ চাকরিই নেই? ঠিক কেন এই ছবি দেখা যাচ্ছে। আবেদনকারীদের মধ্যে একজন বেসরকারি চাকুরে বলছেন, বর্তমানে বেসরকারি চাকরির নিরাপত্তা কার্যত নেই। যে কোনও সময় চাকরি যাওয়ার সম্ভাবনা। তাই সকলেই সরকারি চাকরির পিছনে ছুটছে। তাছাড়া কোনও কাজই ছোট নয়। সেই আপ্তবাক্যকেই পাথেয় করেই সাফাইকর্মী পদের জন্য আবেদন করছেন পিএইচডিরা।

[পরকীয়ায় বাধা, যুবকের দেহ কুচিকুচি করে ডোবানো হল অ্যাসিডে]

সম্প্রতি একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভারতে বেকারত্ব চূড়ান্ত আকার নিয়েছে। ৪৫ বছরের মধ্যে শতাংশের হারে বেকারদের হার সর্বোচ্চ। ইতিমধ্যেই এই পরিস্থিতির জন্য মোদি সরকারকে দায়ী করে আক্রমণ শানিয়েছে বিরোধীরা। বেশ কয়েকটি ছাত্র সংগঠন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভও দেখিয়েছে। বিরোধীরা বলছে, কেন্দ্রে মোদি এবং তামিলনাড়ুর এডিএমকে সরকার বেকার সমস্যা মেটাতে চূড়ান্ত ব্যর্থ। আর এই ছবি সেকথাই বলছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে