BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

সন্ত্রাস রুখতে একসুরে কথা বলবে দেশ, সিদ্ধান্ত সর্বদলীয় বৈঠকে

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: February 16, 2019 4:34 pm|    Updated: February 16, 2019 4:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : সন্ত্রাসবাদের মোকাবিলায় একসুরে কথা বলবে গোটা দেশ। দিল্লিতে আয়োজিত সর্বদলীয় বৈঠকে সর্বসম্মতভাবে এই সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়েছে। দেশের সুরক্ষায় নিয়োজিত নিরাপত্তারক্ষীদের আত্মত্যাগের কথা মাথায় রেখেই আজ এই বিষয়ে একমত হন বৈঠকে উপস্থিত বিজেপি, কংগ্রেস-সহ অন্য দলের প্রতিনিধিরা।

[পুলওয়ামা হামলার প্রতিবাদ, মুম্বইয়ে লাইনে নেমে বিক্ষোভ রেলযাত্রীদের]

পুলওয়ামার অবন্তীপোরায় সিআরপিএফ কনভয়ে জঙ্গি হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করে এর যোগ্য জবাব দেওয়ার শপথও নেওয়া হয়। বৈঠকে পাকিস্তানের নাম নেওয়া না হলেও উল্লেখ করা হয় যে, প্রতিবেশী দেশের সেনাবাহিনীর প্রত্যক্ষ মদতেই ভারতে বারবার সন্ত্রাসবাদী হামলা হচ্ছে। ভারতের পক্ষ থেকেও বারবার শক্ত হাতে এই ধরনের আক্রমণের মোকাবিলা করা হয়েছে। আগেও যখন এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে, তখন পুরো দেশ ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতি আক্রমণের পক্ষে সওয়াল করেছে। আজও সবাই আত্মবলিদান দেওয়া জওয়ানদের পাশে দাঁড়িয়ে, সন্ত্রাসবাদের মোকাবিলার মাধ্যমে দেশের ঐক্য ও অখণ্ডতা রক্ষা করতে চাইছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং-এর ডাকে সাড়া দিয়ে আজ দিল্লিতে আয়োজিত এই সর্বদলীয় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসের গুলাম নবি আজাদ, আনন্দ শর্মা ও জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, তৃণমূলের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডেরেক ও ব্রায়ান, শিবসেনার সঞ্জয় রাউত, সিপিআইয়ের ডি রাজা, ন্যাশনাল কনফারেন্সের ফারুখ আবদুল্লা ও লোক জনশক্তি পার্টির রামবিলাস পাসোয়ান-সহ অন্যরা।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে জানা গেছে, আজকের বৈঠকে থাকা সবার কাছে পুলওয়ামার ঘটনার সম্পূর্ণ বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। সেইসঙ্গে এবিষয়ে সরকার এখনও পর্যন্ত কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে তাও জানানো হয়েছে। আজ সর্বদলীয় বৈঠক শুরু হওয়ার আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং-এর বাড়িতে গিয়ে একপ্রস্থ আলোচনা সারেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব রাজীব গওবা। এর আগে গতকাল কাশ্মীরে গিয়ে এক শহিদ জওয়ানের কফিন কাঁধে করে বয়ে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি নিরাপত্তা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। হাসপাতাল গিয়ে আহতদের সঙ্গে দেখার পরে এই হামলায় জড়িতদের উপযুক্ত শিক্ষা দেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন। সোজাসুজি অভিযোগ করেন পাকিস্তান ও আইএসআইয়ের থেকে অর্থ নিয়েই এই ঘটনা ঘটিয়েছে জইশ জঙ্গিরা। পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিয়ে, বদলা নেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও।

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement