BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

মালা নয় মাস্ক বদল! সামাজিক দূরত্ব মেনে বিয়ে রাজস্থানের দম্পতির

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 19, 2020 2:48 pm|    Updated: May 19, 2020 4:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভালবাসা হোক বা সম্পর্ক, করোনা আবহে কাছাকাছি আসা? নৈব নৈব চ। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রাজস্থানে বিয়ে সারলেন এক দম্পতি। তবে মালা নয় মাস্ক বদল করে বিয়ে সারলেন তাঁরা!

লকডাউনের জেরে পিছিয়ে অনেক অনুষ্ঠান, বিয়ে-অন্নপ্রাশন, আরও কত কী। তবে লকডাউনের বিধি মেনে এরই মাঝে বিয়ে করে নজির গড়েছেন অনেকেই। সোমবার রাজস্থানের যোধপুরেও বিধি মেনে সেভাবেই বিয়ে সারলেন এক দম্পতি। পাত্রের পাঞ্জাবির সঙ্গে পাত্রীর লেহেঙ্গায় বাঁধা ছিল জোড়। সামাজিক দূরত্ব বাড়াতে সেই জোড়ের দৈর্ঘ্য বেশ খানিকটা লম্বা। সংবাদসংস্থা এএনআই-এর প্রকাশিত ছবিতে ধরা পড়ল সেই চিত্র। কিন্তু একি! মালা কোথায়? মালার পরিবর্তে মাস্ক বদল করছেন পাত্র-পাত্রী। মালার পরিবর্তে মাস্ক বদল নিয়ে প্রশ্ন করলে রাজস্থানের পাত্রী নীতু সংবাদসংস্থাকে বলেন, “সামাজিক দূরত্বের সমস্ত বিধি মেনেই তাঁরা বিয়ে সেরেছেন। আর মালা বদল তো সবাই করে বর্তমান পরিস্থিতি মাস্কই আমাদের রক্ষাকবচ। তাই মালার পরিবর্তে মাস্ক বদল করার সিদ্ধান্ত নিই।” দম্পতির এই বিয়েতে আমন্ত্রিতরা সকলেই বিধি মেনে মাস্ক পরে এসেছিলেন বলে জানা যায়। তাদের সকলের জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ও ব্যবস্থা করা হয় বলে জানান আয়োজকরা।

[আরও পড়ুন:বাড়ি ভাড়া মেটাতে না পারায় মালিকের লাগাতার হেনস্তা, আত্মঘাতী পরিযায়ী শ্রমিক]

১৭ মে বিকেলে চতুর্থ দফার লকডাউন ঘোষণার সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক গাইডলাইন প্রকাশ করেন। তাতে বলে দেওয়া হয়েছে যে, বিয়ের অনুষ্ঠানে সর্বাধিক ৫০ জনকে জড়ো হওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সামাজিক দূরত্ব মেনেই তা করতে হবে। এপ্রিল মাসে গুটিকয়েক লোক নিয়ে বিয়ে সেরেছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়ার নাতি তথা কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর ছেলে। বেঙ্গালুরু থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে একটি খামার বাড়িতে মাত্র ২৫ জন আমন্ত্রিকতদের নিয়ে বিয়ে সারতে হয় তাঁকে। তবে সেই বিয়েতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিয়ে বিস্তর প্রশ্ন ওঠে। রাজনৈতিক চাপানউতোরও হয়েছিল দক্ষিণের রাজ্যটিতে।

[আরও পড়ুন:লকডাউন বহাল করতে গিয়ে রোষের শিকার, পাঞ্জাবে মৃত এক পুলিশ আধিকারিক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement