২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

হরসিমরত কৌরের পর এবার দুষ্মন্ত চৌটালা! কৃষি বিল ইস্যুতে চাপে বিজেপির আরেক জোটসঙ্গী

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 18, 2020 2:01 pm|    Updated: September 18, 2020 2:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কিত কৃষি বিল (Farm Bill 2020) ইস্যুতে আরও খানিকটা চাপে পড়তে চলেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের এক জোটসঙ্গী ইতিমধ্যেই এনডিএ ছাড়ার লক্ষ্যে প্রথম পদক্ষেপ করে ফেলেছে। এবার প্রশ্ন উঠছে আরও এক জোটসঙ্গীর ভবিষ্যৎ নিয়ে। কথা হচ্ছে হরিয়ানায় বিজেপির জোটসঙ্গী জেজেপির। অকালি দলের পথ ধরে বিজেপির (BJP) সঙ্গ ছাড়ার জন্য চাপ বাড়ছে দুষ্মন্ত চৌটালার উপরও। আসলে পাঞ্জাবের অকালি দল এবং হরিয়ানার জেজেপি, দুটি দল আদর্শগতভাবে একই। আর এদের মূল ভোটব্যাংকও কৃষকরাই। স্বাভাবিকভাবেই কৃষি বিল নিয়ে বিজেপির প্রতি হরিয়ানা এবং পাঞ্জাবের কৃষকদের ক্ষোভ চাপ বাড়াচ্ছে দুটি দলের উপরই।

অকালি দল প্রথমে বিতর্কিত এই কৃষি বিলগুলিকে সমর্থন করলেও, পরে কৃষক আন্দোলনের চাপে পিছিয়ে এসেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন দলের একমাত্র সদস্য হরসিমরত কৌর বাদল। এখন প্রশ্ন হল জননায়ক জনতা পার্টির দুষ্মন্ত চৌটালাও (Dushyant Chautala) কি একই পথে হাটবেন? তাঁর দলের অন্দরে কিন্তু ইতিমধ্যেই বিদ্রোহ শুরু হয়ে গিয়েছে। আসলে, বাদলদের মতো চৌটালাও এই বিলগুলিকে প্রথমে সমর্থন করেন। কিন্তু পরে দেখা যায়, হরিয়ানাতেই এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভের আঁচ সবচেয়ে গণগণে। রাজ্যজুড়ে সম্মিলিতভাবে কৃষকরা এর বিরুদ্ধে আন্দোলন করছেন। গ্রামে গ্রামে বসছে পঞ্চায়েত। দুষ্মন্ত চৌটালার সমস্যা হল, অকালি দলের মতো তাঁর দলের মূল ভোট ব্যাংকও সেই কৃষকরাই। তাঁর ঠাকুরদা দেবীলাল সিং ভারতের ইতিহাসের অন্যতম সেরা কৃষক নেতা। স্বাভাবিকভাবেই কৃষকদের আন্দোলনে সঙ্গ দেওয়া ছাড়া উপায় থাকবে না তাঁর। আবার কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে গেলে বিজেপির (BJP) সঙ্গ ছাড়তে হবে। সেক্ষেত্রে হরিয়ানার উপমুখ্যমন্ত্রীর গদিও থাকবে না। সব মিলিয়ে এক অদ্ভুদ দোটানায় দুষ্মন্ত চৌটালা।

[আরও পড়ুন: কৃষি বিল ইস্যুতে NDA ছাড়ার পথে অকালিরা! মোদি বললেন, ‘কৃষকদের ভুল বোঝানো হচ্ছে’]

এসবের মধ্যে আবার দলের অন্দরে চাপ বাড়ছে। দলের ১০ বিধায়কের মধ্যে দু’জন রামকুমার গৌতম এবং দেবেন্দ্র সিং ইতিমধ্যেই দুষ্মন্তর বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মুখ খুলেছেন। ১০ সেপ্টেম্বর কুরুক্ষেত্রে কৃষকদের উপর যেভাবে লাঠিচার্জ হয়েছে, সেটারও প্রতিবাদ করেছেন এই দুই বিধায়ক। দলের আরও কয়েকজন নেতা কৃষি বিলকে সমর্থন করায় দুষ্মন্তর উপর ক্ষুব্ধ। বিরোধীরাও চাপ বাড়াচ্ছে। কংগ্রেস নেতা রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা আজ টুইট করে বলছেন,”হরসিমরত কৌরজিও ইস্তফা দিয়ে দিলেন। এবার তো অন্তত উপমুখ্যমন্ত্রীর পদটা ছাড়ুন দুষ্মন্তজি। নাকি কৃষকদের থেকে গদি আপনার বেশি প্রিয়।” অর্থাৎ সব মিলিয়ে কৃষি বিল ইস্যুতে ঘরে বাইরে চাপে জেজেপি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement