BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গুজরাটিদের হামলার জের, মোদির রাজ্য ছাড়ছেন হাজার হাজার হিন্দিভাষী

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 8, 2018 2:42 pm|    Updated: October 8, 2018 2:42 pm

Fearing attack workers from UP-Bihar leaving north Gujrat

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পেটের টানে ভিনরাজ্যে পাড়ি। তাও যে সে রাজ্যে নয়, যে রাজ্যে সুশাসনের বিজ্ঞাপন দেখিয়ে নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন, সেই রাজ্যে। হ্যাঁ, প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গুজরাট থেকে ‘সুশাসন’ও বিদায় নিয়েছে, বিরোধীরা সে অভিযোগ করছে বেশ কিছুদিন ধরেই। তাদের যুক্তি, সুশাসন থাকলে রুজি রুটির টানে রাজ্যে আসা শ্রমিকদের উপর কেন হামলা চালাবেন গুজরাটিরা? আর সেসব দেখে প্রশাসনই বা কেন নীরব থাকবে?

[বায়ুসেনা দিবসে ডাকোটার পাশাপাশি আকাশ কাঁপাল মিগ-২৯]

গুজরাটের বিভিন্ন প্রান্তে এখন স্থানীয়দের হাতে আক্রান্ত হচ্ছেন বিহার, উত্তরপ্রদেশ এবং মধ্যপ্রদেশ থেকে যাওয়া হিন্দিভাষীরা। অভিযোগ, গত ২৮ সেপ্টেম্বর সবরকণ্ঠার জেলার হিম্মতনগরের কাছে ১৪ মাসের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠার পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় হামলা শুরু হয়েছে। মূলত ৬ টি জেলায় হিংসা ছড়িয়েছে, এর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি মেহসানা ও সবরকণ্ঠার। গান্ধীনগর, পাটান এবং আমেদাবাদেও হামলার অভিযোগ উঠছে। ইতিমধ্যেই কয়েক হাজার হিন্দিভাষী গুজরাট ছেড়েছে। এখনও শয়ে শয়ে মানুষ ফিরে যাচ্ছেন নিজের রাজ্যে। যদিও, প্রশাসন প্রাথমিকভাবে এই হামলার খবর স্বীকার করতে চাইছিল না।

[আলোচনার প্রস্তাব খারিজ পুরোহিতদের, শবরীমালা নিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতি]

অবশেষে আজ হামলার ঘটনার স্বীকারোক্তি করেছেন গুজরাটের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ সিং জাদেজা। তিনি বলেছেন, রাজ্যে যাঁরা থাকেন তাঁদের সবাইকে নিরাপত্তা দেওয়া রাজ্য সরকারেই দায়িত্ব। আমরা কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করছি। কেন্দ্রের সঙ্গেও এ নিয়ে আমাদের কথা হয়েছে, আমার কেন্দ্রকে রিপোর্ট জমা দিয়েছি। মন্ত্রী মানলেও পুলিশ আধিকারিকরা ঘটনার গুরুত্ব কমানোর চেষ্টা করছেন। রাজ্য পুলিশের ডিজির দাবি, ‘বহিরাগতরা উৎসবের মরশুমে বাড়ি ফিরলে তার অন্য মানে করাটা ঠিক নয়।’ ডিজি জানান, এ পর্যন্ত মোট ৩৪২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলা হয়েছে ৪২টি। সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দু’জনকে চিহ্নিত করেছে সাইবার ক্রাইম সেল। রাজ্য রিজার্ভ পুলিশের ১৭ কোম্পানি বাহিনী পাঠানো হয়েছে স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে। পুলিশের তরফে বাসে ট্রামে ট্রেনে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে কেউ ভয়ে রাজ্য ছাড়ছেন কিনা। বিহার সরকারও এ নিয়ে ইতিমধ্যেই গুজরাট সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার জানিয়েছেন, তিনি গুজরাট সরকারের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন।

<

p> 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে