BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গেম খেলতে মোবাইল দেয়নি ভাই, রাগের মাথায় পাথর ছুঁড়ে খুন করল নাবালক দাদা!

Published by: Suparna Majumder |    Posted: May 26, 2022 7:59 pm|    Updated: May 26, 2022 7:59 pm

Fighting for mobile, teenage killed brother at Gujarat | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাড়িতে একটাই মোবাইল। সেটা পালা করে নিয়ে গেম খেলত দুই ভাই। তাই হল কাল। ১১ বছরের ভাইকে খুন করল ১৬ বছর বয়সী দাদা। ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাটের (Gujrat) আহমেদাবাদে।

ঘটনার সূত্রপাত সোমবার। দুই ভাই মোবাইল (Mobile Game) নিয়ে অনলাইন গেম খেলছিল। তখনই দু’জনের মধ্যে ঝামেলা বাঁধে। ছোট ভাই মোবাইল দিতে চায়নি দাদাকে। তাতেই রেগে যায় দাদা। ভাইয়ের মাথায় পাথর দিয়ে আঘাত করে সে। অজ্ঞান হয়ে যায় কিশোরটি। তখন ভাইয়ের পায়ে তার দিয়ে পাথর বেঁধে দেয় দাদা। তারপর কাছের একটি কুয়োয় ভাইকে ফেলে দেয় সে। জানা গিয়েছে, ঘটনার সময়ে আশপাশে কেউ ছিল না।

[আরও পড়ুন: বার্ষিক বেতন প্রায় ৮০ কোটি! দেশের সবচেয়ে ‘দামি’ CEO ইনফোসিসের সলিল পারেখ]

এই ঘটনার পরে বাস ধরে রাজস্থানে নিজের আদি বাড়িতে চলে যায় অভিযুক্ত নাবালক (Teenage Murder)। নিজের মা বাবাকেও কিচ্ছু জানায়নি সে। সারাদিন পরে বাড়ি ফিরে দুই ছেলের খোঁজ করেন মা বাবা। কোথাও তাদের না পেয়ে রাজস্থানে জিজ্ঞাসা করেন তাঁরা। তখনই জানতে পারেন রাজস্থানে রয়েছে তাঁদের ছেলে। তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে এসে জিজ্ঞাসা করতেই অভিযুক্ত স্বীকার করে, সে ভাইকে খুন করেছে।

খেদা টাউন থানার সাব ইনস্পেক্টর এস পি প্রজাপতি জানিয়েছেন, বুধবার পরিবারের তরফে অভিযোগ করা হয়। তারপরেই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। কুয়ো থেকে মৃতের দেহ উদ্ধার করা হয়। ওই নাবালকের বিরুদ্ধে খুনের (Minor Murder) মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পরে জানা গিয়েছে, ওই পরিবারের আদি বাড়ি রাজস্থানের বাঁশওয়ারা জেলায়। তাঁরা চাষের কাজ করেন। রোজগারের আশায় তাঁরা গুজরাটে এসেছিলেন। গ্রামের বাইরের দিকে তাঁরা কাজ করতেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: পরপর দলত্যাগে জীর্ণ কংগ্রেসে অক্সিজেন, যোগ দিলেন উত্তরপ্রদেশের প্রভাবশালী ব্রাহ্মণ নেতা

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে