BREAKING NEWS

২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

কেরলে জাহাজে বিস্ফোরণ, অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত ৫ কর্মী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 13, 2018 2:42 pm|    Updated: February 13, 2018 2:42 pm

Five dead, several injured in Cochin Shipyard blast

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাণিজ্যিক জাহাজে আগুন লেগে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটল কেরলে। বিস্ফোরণে আগুনের জেরে ইতিমধ্যেই জাহাজে থাকা পাঁচকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ১১ জন। সকাল দশটা নাগাদ ভয়াবহ বিস্ফোরণটি ঘটে কোচি শিপইয়ার্ড সাগরভূষণ জাহাজে। মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে খবর।

[সুনামির স্মৃতি উসকে ভূমিকম্পে কাঁপল আন্দামান]

জানা গিয়েছে, সাগরভূষণ জাহাজটি সারাইয়ের জন্য কোচির শিপইয়ার্ডে এসেছিল। মেরামতি চলাকালীনই বিস্ফোরণ ঘটে। জাহাজের মধ্যে থাকা একটি ট্যাঙ্কেই ঘটে বিস্ফোরণ। ট্যাঙ্কটির মালিকানা ওএনজিসির। বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গেই দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্যাঙ্কটিতে আগুন লেগে যায়। সেই সময় জাহাজে উপস্থিত থাকা কর্মীদের অধিকাংশ মেরমতির কাজ করছিলেন। ঘটানস্থলেই পাঁচজনের মৃত্যু হয়। মৃতরা স্থানীয় রামশাদ, ভিবিন, কেভিন, পাথানামিথিত্তা এলাকার বাসিন্দা। আহত ১১ জনের অবস্থা গুরুতর। তাঁদের শরীরের সিংহভাগ পুড়ে যাওয়ায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এদিকে বিস্ফোরণের জেরে আগুন ক্রমশ বাড়ছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল বাহিনী।

kochi-fire

এর্ণাকুলাম পুলিশ জানিয়েছে, সম্প্রতি দুর্ঘটনাগ্রস্ত সাগরভূষণ জাহাজটিতে কিছু ত্রুটি দেখা যায়। তাই বন্দরের শিপইয়ার্ডে সারাইয়ের কাজ চলছিল। সেই সময় কোনওভাবে জাহাজে থাকা ট্যাঙ্কে বিস্ফোরণটি ঘটে। তার জেরেই আগুন লেগেছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে। তবে কী করে ট্যাঙ্কে বিস্ফোরণ ঘটল তা এখনও স্পষ্ট নয়। পূর্ণাঙ্গ তদন্তের পরই বিস্ফোরণের কারণ জানা যাবে। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, বিস্ফোরণের জেরে ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছিল জাহজটি। আগুনের পাশাপাশি দমবন্ধ হয়েও কর্মীদের মৃত্যু হয়েছে।

সাগরভূষণ মূলত পণ্য পরিবহণে নিযুক্ত ছিল। ১৯৮৭ সালে তৈরি হয় জাহাজটি। অন্যদিকে ১৯৭৮ সাল থেকে পরিষেবা দিয়ে আসছে কোচির এই শিপইয়ার্ড।

[শাড়ি পরেই ১৩ হাজার ফুট থেকে ঝাঁপ মহিলার, ভাইরাল ভিডিও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে