BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৭  রবিবার ২৪ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফের গুজরাটের কোভিড হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, মৃত্যু ৫ রোগীর

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 27, 2020 8:23 am|    Updated: November 27, 2020 8:23 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের গুজরাটের (Gujrat) কোভিড হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। আগুনে মৃত্যু হয়েছে পাঁচ করোনা আক্রান্তের। ঘটনাটি ঘটেছে রাজকোটের উদয় শিবানন্দ কোভিড হাসপাতালে।

[আরও পড়ুন: প্রয়াত ‌ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি বিপ্লবের পথিকৃৎ তথা TCS-এর প্রতিষ্ঠাতা ফকিরচাঁদ কোহলি]

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে। এর ফলে প্রাণ বাঁচাতে ছুটোছুটি শুরু হলে আটকে পড়েন পাঁচ রোগী। ধোঁয়া ও আগুনে আর জ্বলন্ত বিল্ডিং থেকে সময় থাকতে বেরিয়ে আসতে পারেননি তাঁরা। তবে কীভাবে আগুন লাগলো তা এখনও স্পষ্ট নয়। এই অগ্নিকাণ্ডের তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি। দমকল বিভাগের আধিকারিক জেবি থেভা জানান, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান দমকল কর্মীরা। দ্রুত ৩০ জন রোগীকে বের করে আনা হয়। তবে আইসিইউ ইউনিটের মধ্যেই মৃত্যু হয় ৩ জনের। মনে করা হচ্ছে শর্ট সার্কিটের ফলে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। তবে তদন্ত না করে এখনই কিছু বলতে নারাজ দমকল বিভাগ।

উল্লেখ্য, গত আগস্ট মাসেও এমন এক ভয়াবহ ঘটনার সাক্ষী হয় গুজরাট। আহমেদাবাদের (Ahmedabad) কোভিড হাসপাতালে ঘটে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড। পুড়ে মৃত্যু হয় অন্তত ৮ জন করোনা আক্রান্তের। তাঁদের মধ্যে ছিলেন ৩ জন মহিলাও। সেবারও আগুন লাগে নভরংপুরার শ্রে সুপার স্পেশ্যালিটি হসপিটালের আইসিইউতে। ওই হাসপাতালের আচমকা হাসপাতালের আইসিইউ থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখেন হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষীরা। মুহূর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে আইসিইউ ও সংলগ্ন ওয়ার্ডে। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা হাসপাতাল। অসুস্থ অবস্থাতেই প্রাণ বাঁচাতে ছুটে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন অনেক রোগী। কিন্তু প্রাণ রক্ষায় ব্যর্থ হন অনেকে । এবার ফের এহেন ঘটনা ঘটায় প্রশ্নের মুখে পড়েছে হাসপাতালগুলির নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

[আরও পড়ুন: ‘হিন্দু মেয়েদের বোন ভাবুন’, মুসলিমদের পরামর্শ সমাজবাদী পার্টির সাংসদের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement