BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

প্রতীক্ষার অবসান, ভারতের মাটি ছুঁল রাফালে যুদ্ধবিমান

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 29, 2020 3:18 pm|    Updated: July 29, 2020 3:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবেশেষে অপেক্ষার অবসান। বিতর্কের রেশ কাটিয়ে বুধবার দুপুর ৩টে ১৫ মিনিটে হরিয়ানার আম্বালা বায়ুসেনা ঘাঁটিতে এসে পৌঁছল ‘বিউটি অ্যান্ড বিস্ট’ রাফালে (Rafale Jets) যুদ্ধবিমান। সুদূর ফ্রান্স (France) থেকে সাত হাজার কিলোমিটার পথ পেরিয়ে মাঝ আকাশে প্রযুক্তির ভেলকি দেখিয়ে ভারতের মাটি ছুঁল গেম চেঞ্জার’ মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্টস।  আম্বালা সেনাঘাঁটিতে গোল্ডেন অ্যারো স্কোয়াড্রনের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। চিনের সঙ্গে সংঘর্ষের আবহে ভারতীয় বায়ুসেনায় রাফালের অন্তর্ভুক্তি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

 

rafale-

মঙ্গলবার রাতে আবু ধাবিতে থাকা ফ্লান্সের আল ধাফরা ঘাঁটিতে বিশ্রাম নেন পাইলটরা। সেখান থেকে বুধবার সকালে ফের রওনা দেয় অত্যাধুনিক এই যুদ্ধবিমানগুলি। তারপর থেকেই পশ্চিম আরব সাগরে থাকা ভারতীয় নৌবাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিল যুদ্ধবিমানগুলির চালকরা। পশ্চিম আরব সাগরে থাকা ভারতীয় রণতরী INS Kolkata’র সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছিল। ভারতের আকাশে ফ্রান্সের বিউটি অ্যান্ড দি বিস্টকে স্বাগত জানায়  INS Kolkata-ই। ভারতের আকাশে ৫টি রাফালেকে এসকর্ট করে ভারতে আনল সুখোই। 

[আরও পড়ুন : মাঝ আকাশে জ্বালানি ভরল রাফালে, প্রযুক্তির চূড়ান্ত নিদর্শন ফরাসি যুদ্ধবিমানের]

রাফালের পাইলটের সঙ্গে ভারতীয় নৌসেনার কথাও হয়।  মিরাজ ২০০০ (Miraj 2000), সুখোই ৩০ (Sukhoi 30), মিগ ২৯ (MIG 29), মিগ ২১ বাইসন (MIG 21 Bison), তেজসের (Tajas) নতুন সঙ্গীর সাফল্যের জন্য শুভকামনাও জানান তাঁরা।  বলেন, ‘সাফল্যের আকাশ ছুঁয়ে ফিরুক রাফালে।’ আম্বালায় রাফালে স্বাগত জানাতে উপস্থিল ছিল গোল্ডেন অ্যারো স্কোয়াড্রন। এয়ার ফোর্স স্টেশন সংলগ্ন রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল গতকাল রাত থেকেই। এয়ারবেস লাগোয়া চারটি গ্রামে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। রাস্তাঘাটে লোকজনের জমায়েত, বাড়ির ছাদে উঠে প্রস্তুতি দেখার অনুমতি নেই কারও। রাস্তায় টহল দিচ্ছে পুলিশ। এয়ারবেস ও লাগোয়া চত্বরে আকাশে চক্কর কাটছে ড্রোন। চারদিক থেকেই আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

[আরও পড়ুন : চিনকে বেকায়দায় ফেলে ইন্দোনেশিয়াকে ব্রহ্মস মিসাইল দেবে ভারত!]

চিনের সঙ্গে লাদাখ সীমান্তে টানাপোড়েন চলছেই। আবার চিনের সঙ্গে গলা মিলেয়ে রণহুঙ্কার দিচ্ছে পাকিস্তানও। এমন পরিস্থিতিতে চিনের সেনার হাতে রয়েছে জে-২০, জে-১৬, জে-১১-এর মতো একাধিক ফিফথ জেনারেশন যুদ্ধবিমান। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তাদের সঙ্গে চোখে চোখ রেখে টক্কর দিতে পারবে রাফালে ফাইটার জেট। বরং চিনের যুদ্ধবিমানগুলির থেকে কয়েক ধাপ এগিয়ে ফরাসি বিউটি অ্যান্ড দি বিস্ট। কারণ, চিনের অধিকাংশ যুদ্ধবিমান যুদ্ধক্ষেত্রে পরীক্ষা দেয়নি। সেখান থেকে রাফালে ক্ষমতা সারা বিশ্বে স্বীকৃত। ফলে বর্তমান পরিস্থিতিতে পাকিস্তান ও চিনকে জবাব দিতে কোমর বেঁধে তৈরি রাফালে বাহিনী।রাফালের বিধ্বংসী ক্ষমতা বাড়াতে যুক্ত হয়েছে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র। খুব শীঘ্রই ফ্রান্স থেকে আসছে হ্যামারও।  সবমিলিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে রণসজ্জায় সেজে উঠছে ফ্রান্সের বিউটি অ্যান্ড বিস্ট।  

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement