BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির তৃতীয় মামলাতেও দোষী সাব্যস্ত লালু

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 24, 2018 6:11 am|    Updated: January 24, 2018 8:17 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরও বিপাকে লালুপ্রসাদ যাদব। পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির তৃতীয় মামলাতেও দোষী সাব্যস্ত হলেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার, চাইবাসা মামলায় রায় ঘোষণা করে রাঁচির সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত। একই সঙ্গে এই মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে বিহারের আর এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্রকেও। দুই দোষী সাব্যস্তকেই পাঁচ বছরের জেলের সাজা দেয় আদালত। একই সঙ্গে পাঁচ লক্ষ টাকার জরিমানাও ধার্য করা হয় দোষীদের ওপর।

পশুখাদ্য-সহ একাধিক দুর্নীতির মামলায় কার্যত বিধ্বস্ত লালু। এর আগে ৬ জানুয়ারি পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দ্বিতীয়, দেওঘর মামলায় লালুপ্রসাদ যাদবকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত। ওই মামলায় লালুর বিরুদ্ধে ভুয়ো নথি দেখিয়ে দেওঘর ট্রেজারি থেকে প্রায় ৮৯ লক্ষ টাকা তোলার অভিযোগ ছিল।

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে মোট ছ’টি মামলা রয়েছে। এনিয়ে তিনটি মামলায় ইতিমধ্যেই দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন যাদব কুলপতি। এই খবর শোনার পর চরম হতাশা লালু শিবিরে। ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন পুত্র তেজস্বী  যাদব। তাঁর অভিযোগ, বিজেপি ও বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার ষড়যন্ত্র করে বাবাকে ফাঁসিয়েছেন।

মোট ৯৫০ কোটি টাকার পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দেওঘর কোষাগার মামলায় দোষী সাব্যস্ত লালু বর্তমানে রাঁচির বিরসা মুন্ডা জেলে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ডের মেয়াদ কাটাচ্ছেন। এদিনের মামলায় অভিযোগ ছিল ১৯৯০-এর দশকে চাইবাসা ট্রেজারি থেকে জাল নথি দেখিয়ে ৩৫.৬২ কোটি টাকা অবৈধভাবে সরিয়ে নেন লালু। ওই সময় অবিভাজিত বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন তিনি।

[লালুকে সাজা শুনিয়েছেন, পারিবারিক জমি উদ্ধারে নাজেহাল সেই বিচারক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement