BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার সিবিআইয়ের প্রাক্তন ডিরেক্টর অশ্বিন কুমারের দেহ

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 7, 2020 9:40 pm|    Updated: October 7, 2020 9:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার সিবিআইয়ের (CBI) প্রাক্তন ডিরেক্টরব আশ্বিন কুমারের দেহ। তিনি নাগাল্যান্ডের প্রাক্তন রাজ্যপাল ছিলেন।

[আরও পড়ুন: ‘পুনর্বাসন নয়, জঙ্গিদের প্রাপ্য শুধু বুলেট’, বিস্ফোরক মন্তব্য কাশ্মীরের BJP সভাপতির]

CBI সূত্রে খবর, সিমলায় নিজের বাসভবনে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় হয় আশ্বিন কুমারের দেহ। ইতিমধ্যে ঘটমস্থলে পৌঁছে পুলিশ ও চিকিৎসকদের তদন্তকারী দল। ২০১৩ সালে মণিপুরের রাজ্যপালের পদে থাকার পর তিনি নাগাল্যান্ডের রাজ্যপালের দায়িত্ব সমলেছেন। ২০০৮ থেকে ২০১০ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটির ডিরেক্টর জেনারেল পদে ছিলেন অশ্বিন কুমার। বহু গুরুত্বপূর্ণ মমলায় তদন্ত করেছেন তিনি। ফলে তাঁর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে উঠছে একাধিক প্রশ্ন।

উল্লেখ্য, নাগাল্যান্ডে জঙ্গিদমনে খবর হাসিল করায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল তাঁর। পরে রাজ্যপাল পদে আসীন হয়ে সেই ভূমিকা পালন করেন আর এন রাবি। নাগাল্যান্ডের জন্য পৃথক পতাকা তথা পৃথক নাগালিম রাষ্ট্রের দাবি আরও জোরাল হচ্ছে। বিচ্ছিন্নতাবাদীদের পাশাপাশি এবার তথাকথিত মূল ধারার রাজনৈতিক দলগুলিও এই দাবিতে সরব হচ্ছে। তাঁদের দাবি, ভারত সরকার গোজামিল দিয়ে শান্তি চুক্তির পরিকল্পনা না করে নাগাদের সব দাবি মেনে নিক। পৃথক পতাকা এবং সংবিধান নাগাদের ন্যায্য অধিকার।

নাগাল্যান্ড, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, মিজোরাম, অসম ও মায়ানমারের বিস্তীর্ণ অঞ্চল নিয়ে নাগা স্বাধীনভূমি বা ‘নাগালিম’ গড়ার ডাক বহুদিনের৷ এই দাবিতে অনেক দিন ধরেই জঙ্গি আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে নাগা বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন এনএসসিএন৷ সংগঠনটি দু’ভাগ হয়ে যাওয়ার পর মুইভা গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে কেন্দ্র৷ কিন্তু সমস্ত আলোচনার থমকে আছে এনএসসিএনের দুটি দাবির উপর। পৃথক পতাকা এবং পৃথক সংবিধান। এনএসসিএন (আই-এম)-এর প্রধান আইজ্যাক মুইভা জানিয়েছেন, স্বাধীন নাগালিমের দাবিতে এত দশকের আন্দোলন ও রক্ত ঝরানোর পরে সংবিধান ও পতাকার দাবি ছেড়ে দেওয়া যায় না। অন্যদিকে, ভারত সরকার কোনওভাবেই এই দুটি দাবি মানতে নারাজ। যে কারণে এনএসসিএনের সঙ্গে সমস্তরকম শান্তি আলোচনার রাস্তা আপাতত বন্ধ।

[আরও পড়ুন: পুতিনকে ফোন মোদির, QUAD বৈঠকের পর ‘বন্ধু’ রাশিয়াকে ‘আশ্বস্ত’ করল ভারত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement