BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে রাজ্যে ট্রেন থামানোয় ‘না’, রেলকে আরজি গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 15, 2020 3:12 pm|    Updated: May 15, 2020 3:27 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধান। চলতি সপ্তাহের শুরুতেই গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন গোয়া করোনা মুক্ত। শীঘ্রই গোয়ায় ঘুরতে যেতে পারবেন পর্যটকরা। কিন্তু এই ঘোষণার প্রায় ২ দিনের মাথাতেই ফের সংক্রমণ দেখা দিল রাজ্যে। সমুদ্রসৈকতের সৌন্দর্য থেকে তাই ফের পর্যটকদের দূরে থাকার পরামর্শ দিলেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত।

প্রায় এক মাস ধরে সংক্রমণ মুক্ত ছিল গোয়া। তাই করোনা আবহে আশার আলো দেখাতে মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত পর্যটকদের জন্য সমুদ্রসৈকতের সৌন্দর্য্য উপভোগ করার ঘোষণা করেছিলেন। কিন্ত কোথায় কী? ‘বন্দে ভারত মিশনে’ বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়রা বাড়ি ফিরতে শুরু করলেই ফের মারণ ভাইরাসের হানা দেখা দেয় গোয়ায়। তাই শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন বা বিমানে করে যারা রাজ্যে ফিরছেন তাঁদের সকলকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন মুখ্যমন্ত্রী সাওয়ান্ত। বৃহস্পতিবার প্রমোদ সাওয়ান্ত আবেদন করেন যে, ১৫ মে দিল্লি থেকে তিরুবনন্তপুরম যাওয়ার শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনটিকে যেন গোয়া স্টেশনে না থামানো হয়। সূত্রের খবর, দিল্লি থেকে তিরুবনন্তপুরম যাওয়ার পথে মাদগাঁও স্টেশনটি গোয়ায় পড়ে। গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী জানান, “এই ট্রেনের ৭২০ জন যাত্রী মাদগাঁও-এর টিকিট বুক করেছেন। তবে তাঁদের মধ্যে খুব কম মানুষই গোয়ার বাসিন্দা বলে জানা যায়। একবার গোয়া করোনা আতঙ্ক থেকে মুক্তি পেয়েছে। আবার সেই আতঙ্ক রাজ্যে ফিরে আসুক তা চাই না। তাই রাজ্যে ফেরার পর তাদের সকলের করোনা পরীক্ষা করা প্রয়োজন। আগতদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। তবে তাঁরা কতটা সেই পরামর্শ মানবেন সেই আশঙ্কা রয়েছে। তাই ট্রেনটি রাজ্যে নির্ধারিত স্টেশনে না থামলেই ভাল হয়।” তবে এই বিষয়ে কোঙ্কন রেলওয়ে আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোক করা হলে তারা জানান, “এই বিষয়ে উপরিমহল থেকে তাঁদের কাছে কোনও নির্দেশ নেই।”

[আরও পড়ুন:এবার রেল ভবনে করোনার থাবা, সংক্রমণের আশঙ্কায় বন্ধ কাজকর্ম]

প্রায় এক মাস করোনার কবল থেকে মুক্তি পাওয়ার পরই ভিন রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকরা গোয়ায় ফেরেন। তাঁদের মধ্যে ৮ জনের শরীরে সংক্রমণ দেখা দেয়। এমতাবস্থায় রাজ্যে আগতদের সমুদ্রসৈকতে নেমে বিনোদনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী। তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কড়া নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ফলে লকডাউনের জেরে যে পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করার স্বপ্ন দেখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, করোনার সংক্রমণ সেই স্বপ্নকে ডুবিয়ে দিল বিশ বাঁও জলে।

[আরও পড়ুন:করোনায় ভয় নেই প্রেসিডেন্টের! মাস্ক না পরেই মাস্ক বিলি করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement